ডিজিটাল স্বাস্থ্যসেবায় গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার

স্বাস্থ্য

স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সরকার সব নাগরিকের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে স্বাস্থ্যসেবাতে ডিজিটাল সেবা ব্যবহারে গুরুত্ব দিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘ডিজিটাল স্বাস্থ্যসেবা স্থাপনে বিশাল বিনিয়োগ করা হয়েছে, কারণ আমাদের প্রধান অগ্রাধিকার স্বাস্থ্যখাতে এসডিজি অর্জন, প্রাতিষ্ঠানিক বিতরণ এবং শিশু ও মাতৃমৃত্যু হার হ্রাস নিশ্চিত করা।’

সোমবার ভারতের রাজধানী দিল্লির একটি হোটেলে চতুর্থ গ্লোবাল ডিজিটাল হেলথ পার্টনারশিপ (জিডিএইচপি) সম্মেলনে মন্ত্রী এ কথা বলেন। স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের তথ্য কর্মকর্তা পরীক্ষিৎ চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

স্বাগতিক ভারত, বাংলাদেশ, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, সুইজারল্যান্ড, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, সিঙ্গাপুর, সৌদি আরবসহ ফোরামের সদস্য ২৩ দেশের মন্ত্রী, সরকারি ও বেসরকারি সংস্থার প্রতিনিধিবৃন্দ এই সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন।

এর আগে, ভারতের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জগৎ প্রকাশ নাদ্দার দুই দিনের শীর্ষ সম্মেলনের উদ্বোধন করেন, যাতে মধ্যে ২৩ সদস্যরাষ্ট্র ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধিরা তাদের বক্তৃতা উপস্থাপন করেন।

বাংলাদেশের স্বাস্থ্যখাতে ডিজিটাল প্রযুক্তির ব্যবহার সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত বিবরণ প্রদান করে জাহিদ মালেক বলেন, দেশের সামগ্রিক স্বাস্থ্যসেবা সুবিধার উন্নতির জন্য এই ধরনের প্রযুক্তি তৃতীয় স্তরের স্বাস্থ্যসেবাগুলোতে ব্যবহার করা হচ্ছে।

বাংলাদেশে ডিজিটাল স্বাস্থ্য হস্তক্ষেপ নিশ্চিত করার জন্য নীতি বাস্তবায়নের বিষয়ে তিনি বলেন, বর্তমান সরকার দেশের ১৪ হাজার কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে ৩২টিরও বেশি ওষুধ সরবরাহ করছে, স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীদের পরিসেবা রেকর্ডিংয়ের জন্য ট্যাব দেয়া হয়েছে এবং টিকা ও ওষুধ গ্রহণের জন্য বার্তা দেয়া হয়েছে, মা এবং শিশুদের জন্য।

তিনি বলেন, স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সকল স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থাপনার জন্য ডিজিটাল পর্যবেক্ষণ ব্যবস্থা স্থাপন করা হয়েছে যাতে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করা যায় এবং সকল হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ইন্টারনেট সংযোগ সরবরাহ করা হয়।