বার্তাবাংলা ডেস্ক »

শুয়োরের মর্মান্তিক আক্রমণের শিকার হয়ে রাশিয়ার ৫৬ বছর বয়সী এক নারী প্রাণ হারিয়েছেন। নিজের খামারে পোষা শুয়োরের দল হঠাৎ একদিন তাকে আক্রমণ করলে তিনি রক্তাক্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। পোষা শুয়োরের দলের মধ্যে এমন ভয়াবহ প্রবৃত্তি জেগে উঠতে পারে তা হয়তো দুঃস্বপ্নেও ভাবতে পারেন নি তিনি।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে রাশিয়ার স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানানো হয়েছে। ভয়ঙ্কর এই ঘটনাটি ঘটেছে রাশিয়ার মধ্যাঞ্চলীয় উডমুরটিয়া জেলায়। নিহত ওই নারীর একটি শুয়োরের খামার ছিল। শুয়োরদের তিনি খাবার দিচ্ছিলেন। এমন সময়েই তিনি মৃগী রোগে আক্রান্ত হয়ে শুয়োরের দঙ্গলে পড়ে যান।

সুযোগ পেয়ে শুয়োরের দল তার উপরে ঝাঁপিয়ে পড়ে। শুয়োরের দলের আক্রমণে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের পর তিনি মারা যান। তার স্বামী তাকে মৃত অবস্থায় খামারে খুঁজে পান। তিনি খামারে গিয়ে দেখেন তার স্ত্রী মাটিতে পড়ে আছেন। শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ ও মুখ শুয়োরেরা ছিঁড়ে খেয়েছে। ঘটনাস্থলে তদন্তে এসে গোয়েন্দা কর্মকর্তারাও স্তম্ভিত হয়ে যান ঘটনার বীভৎসতায়।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ওরিগন অঙ্গরাজ্যে এক কৃষককে এভাবেই খামারের শুয়োরেরা হত্যা করেছিল। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, পোষা শুয়োর সাধারণত এমন কাণ্ড ঘটায় না। কিন্তু এ ক্ষেত্রে সেই বিরল ঘটনাই ঘটেছে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »