শতবর্ষের কুয়ার দেয়াল থেকে মোছা হলো ‘পাকিস্তান জিন্দাবাদ

ফুলবাড়ী

স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে একটি শত বছরের কুয়ার গায়ে লেখা ‘পাকিস্তান জিন্দাবাদ’ মুছে ফেলা হলো। বিভিন্ন গণমাাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর প্রশাসনের নজরে এলে সংস্কারের কার্যক্রম শুরু করে উপজেলা প্রশাসন।

কুয়াটিতে পাকিস্তানের জাতীয় পতাকার প্রতীক ‘চাঁদ-তারা’ অঙ্কিত ফলকে ‘পাকিস্তান জিন্দাবাদ, মালিক- ভোলা মামুদ। ১৩১৩ চৈত্র মাস। মেরামত ১৩৫৭।’ লেখা ছিল। কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের আজোয়াটারি গ্রামে ১১১ বছর আগে তৈরি এই কুয়া ইন্দ্রার পাড় নামে পরিচিত।

স্থানীয় বাসিন্দা আব্দুর রব, শফিকুল ইসলাম ও ছকিনা বেগমসহ আরও অনেকে জানান, এই এলাকায় বৃটিশ আমলে পানির সঙ্কট ছিল। আর সেই সঙ্কট দূর করতে প্রয়াত ভোলা মামুদ নিজ উদ্যোগে আধাশতক জায়গায় কুয়াটি খনন করেন। সেই থেকে আজ অবধি এই কুয়ার পানি শুকায়নি। এই কুয়ার পানি এখানকার মানুষ পান করাসহ গোসল ও সাংসারিক কাজে এখনও ব্যবহার করে যাচ্ছেন।

তারা আরও বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর সংস্কারের মাধ্যমে কুয়ার গায়ে পাকিস্তান জিন্দাবাদ কথাটি মুছে ফেলায় এলাকায় স্বস্তি ফিরে এসেছে।

এ ব্যাপারে কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলজার হোসেন জানান, প্রাচীনতম কুয়াটি মেরামতের জন্য গত ২০১৭/১৮ অর্থ বছরে বরাদ্দ আসে। এ মাসে দেড় লাখ টাকা ব্যয়ে এটি বাস্তবায়নের কাজ শুরু হয়েছে। গত ১৫ দিন ধরে কুয়াটি সংস্কারের কাজ চলছে। এরইমধ্যে পাকিস্তান জিন্দাবাদ শব্দটি মুছে ফেলা হয়েছে। কয়েক দিনের মধ্যেই সংস্কারের কাজ শেষ করে জয় বাংলা নামকরণ করা হবে।

এ প্রসঙ্গে ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাছুমা আরেফিন জানান, কুয়া সংস্কারের কাজ চলছে। এদেশে পাকিস্তান জিন্দাবাদ লেখাটি থাকবে না। কুয়ার গায়ে পাকিস্তান জিন্দাবাদ লেখাটি মুছে ফেলা হয়েছে। সংস্কারের কাজ শেষ হলে জয় বাংলা নামকরণ করা হবে।