বার্তাবাংলা ডেস্ক »

ট্রেলারেই চমক দেখিয়েছে ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের জীবনী নিয়ে তৈরি সিনেমা ‘দ্য অ্যাক্সিডেন্টাল প্রাইম মিনিস্টার’। মনমোহন সিং প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন মিডিয়া উপদেষ্টা করেছিলেন সাংবাদিক সঞ্জয় বারুকে। তার লেখা বই ‘দ্য অ্যাক্সিডেন্টাল প্রাইম মিনিস্টার’ এর ওপর ভিত্তি করেই এই সিনেমা।

তবে মুক্তির আগেই একের পর এক বিতর্ক এই সিনেমাকে ঘিরে। ‘দ্য অ্যাক্সিডেন্টাল প্রাইম মিনিস্টার’-এর ট্রেলার প্রকাশ্যে আসতেই বেশ কয়েকটি রাজ্যে ছবিটি নিষিদ্ধ ঘোষণা করার হুমকি আসতে থাকে।

এবার সেই ট্রেলারটিই উড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠল ইউটিউব-এর বিরুদ্ধে। ছবির প্রধান অভিনেতা অনুপম খের টুইট করে ইউটিউবের দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলেছেন।

টুইটারে অনুপম লিখছেন, ‘প্রিয় ইউটিউব! দ্য অ্যাক্সিডেন্টাল প্রাইম মিনিস্টার লিখে সার্চ করলে প্রথম পঞ্চাশের মধ্যেও আসছে না। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ভক্তরা ফোন করে আমাকে জানাচ্ছেন। সোমবার পর্যন্ত ইউটিউবে ১ নম্বর ট্রেন্ডিং ছিল। অনুগ্রহ করে সাহায্য করুন। হ্যাপি নিউ ইয়ার।’

যে প্রশ্ন অনুপম ছুড়েছেন, নেটপাড়ার লোকজনদের মনেও সেই কথাই ঘুরপাক খাচ্ছে। মুক্তির এক সপ্তাহের মধ্যে যে ট্রেলারের ভিউয়ার ৩৭ মিলিয়ন (৩ কোটি ৭০ লাখ), সেই ট্রেলার এখন কিনা খুঁজেই পাওয়া যাচ্ছে না ইউটিউবে!

দুদিন আগে পর্যন্ত ইউটিউবে ট্রেন্ডিং লিস্টের প্রথমেই ছিল ‘দ্য অ্যাক্সিডেন্টাল প্রাইম মিনিস্টার’-এর ট্রেলার। বুধবার ইউটিউবে ‘দ্য অ্যাক্সিডেন্টাল প্রাইম মিনিস্টার’ লিখে সার্চ করলে প্রথম পাতায় ছবির কোনো নাম অবধি নেই!

আগামী ১১ জানুয়ারি মুক্তি পাবে ওই ছবি। তার আগে অনুপমের এই টুইটের পর থেকেই চতুর্দিকে জল্পনা, ‘দ্য অ্যাক্সিডেন্টাল প্রাইম মিনিস্টার’-এর ট্রেলারটা বোধহয় বাদ দিয়েছে ইউটিউব। ইউটিউবে সার্চ করার পর স্ক্রিনশট তুলেও শেয়ার করেছেন অনেকে।

তবে ‘ইউটিউব ইন্ডিয়া’র তরফ থেকে এখনও পর্যন্ত কোনো প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি। অন্যদিকে নেটিজেনদের একটা অংশের জল্পনা, এর পিছনে কোনো রাজনৈতিক অভিসন্ধি নেই তো!

তবে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বাংলাদেশ থেকে ইউটিউবে ঢুকলে ঠিকই ‘দ্য অ্যাক্সিডেন্টাল প্রাইম মিনিস্টার’-এর ট্রেলার দেখা গেছে। ঢুকে দেয়া যায়, এ সময় পর্যন্ত ট্রেলারটি দেখা হয়েছে ৪ কোটি ৩৯ লাখ ২৫ হাজার ৫৪৫ বার। কমেন্টস পড়েছে ৬৯ হাজার ৮২৮টি। ট্রেলারটি পছন্দ করেছেন ৬২ লাখ ২০ হাজার জন। অপছন্দ করেছেন ৫৭ হাজার জন।

কংগ্রেসের দাবি, মুক্তির আগে সিনেমাটি প্রদর্শনের ব্যবস্থা করা হোক। আপত্তিকর কিছু থাকলে তা কাটছাঁট করে দেখানো হোক। পাশাপাশি বিজেপির প্রচার, একটানা দশ বছর এক পরিবার কীভাবে দেশ শাসনের মধ্য দিয়ে ফায়দা তুলেছে, এই সিনেমা তারই কাহিনী।

সাংবাদিক সঞ্জয় বারুর লেখা বই ‘দ্য অ্যাক্সিডেন্টাল প্রাইম মিনিস্টার’ এর ওপর ভিত্তি নির্মিত সিনেমার নামও অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে। তার দশ বছরের শাসনের সময় বিভিন্ন বিষয়ে মনমোহন সিংয়ের অবস্থান, তাঁর ওপর সোনিয়ার প্রভাব, বিভিন্ন দুর্নীতি, রাহুল গান্ধীর মনোভাব ইত্যাদির উল্লেখ রয়েছে।

মনমোহন সিংয়ের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন বিজেপি ঘনিষ্ঠ অনুপম খের। তার স্ত্রী কিরণ খের বিজেপি সাংসদ। সিনেমাটির ট্রেলার বৃহস্পতিবার মুক্তি পাওয়া মাত্রই শুরু হয়েছে বিতর্ক। তথ্য বিকৃত করার অভিযোগ তুলেছেন কংগ্রেসের একাধিক নেতা।

ট্রেলারে দেখানো হয়েছে, মনমোহন সিং বলছেন, সরকারের সিদ্ধান্ত কে নেবেন? প্রধানমন্ত্রী না ন্যাশনাল অ্যাডভাইজরি কমিটি? একটি দৃশ্যে দেখানো হয়েছে, মনমোহন সিংয়ের উপস্থিতিতে সোনিয়া গান্ধী বলছেন, একটার পর একটা বিতর্ক ও কেলেঙ্কারি মাথা চাড়া দিচ্ছে। এই অবস্থায় কী করে রাহুল দায়িত্ব নেবেন? পরমাণু চুক্তি সইয়ের সময় মনমোহন সিংয়ের পদত্যাগ করার হুমকির প্রসঙ্গটিও ট্রেলারে রাখা হয়েছে। এসব নিয়েই বিতর্ক।

 

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »