বার্তাবাংলা ডেস্ক »

ভাত দে, গোলাপী এখন ট্রেনে, নয়ন মনি’র মতো অনেক কালজয়ী সিনেমার পরিচালক আমজাদ হোসেন। তার মৃত্যুতে চলচ্চিত্রাঙ্গনে পড়েছে শোকের ছায়া। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে চলচ্চিত্র, নাটক ও সংগীত সংশ্লিষ্ট মানুষরা শোক প্রকাশ করছেন।

আমজাদ হোসেনের মৃত্যুতে বিজ্ঞাপন নির্মাতা ও চলচ্চিত্র পরিচালক অমিতাভ রেজা শোক প্রকাশ করে লিখেছেন, গোলাপীকে নিয়ে ট্রেনে করে চলে গেলেন আমজাদ ভাই। নির্মাতা মোস্তাফিজুর রহমান মানিক লিখেছেন, কিংবদন্তি চলচ্চিত্রকার আমজাদ হোসেন আর নেই। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। আমরা গভীরভাবে শোকাহত।

জনপ্রিয় নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী লিখেছেন, ‘সব নদী ফুরায় এ জীবনের সব লেনদেন।
আমাদের দেখা হয়তো কম হইতো, কথা কম হইতো, আমাদের পথও হয়তো আলাদা ছিলো যেমন করে আলাদা হয়ে যায় দুই ভিন্ন সময়ের নদী। কিন্তু অগ্রজের প্রতি শ্রদ্ধার বিন্দুমাত্র কমতি ছিলো বলে মনে পড়ে না। আপনার মধ্যেও অণুজের প্রতি স্নেহের কোন কমতি দেখি নাই। ভালো থাকবেন, আমজাদ ভাই, চিরশান্তির দেশে।’

জনপ্রিয় চিত্রনায়ক শাকিব খান তার ভেরিফায়েড ফেসবুক ফ্যান পেজে লিখেছেন, ‘দেশ বরেণ্য চলচ্চিত্র নির্মাতা আমজাদ হোসেন আর বেঁচে নেই। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন) তার চলে যাওয়ায় চলচ্চিত্রে অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল। গুণী এই মানুষটির মৃত্যুতে জানাই গভীর শোক। ওপারে ভালো থাকবেন প্রিয় আমজাদ হোসেন।’

চিত্রনায়ক ওমর সানী লিখেছেন , ‘আমজাদ হোসেনের মৃত্যুর সংবাদ মেনে নিতে পারছি না। তিনি ছিলেন এক কথায় অলরাউন্ডার একজন মানুষ। তার পরিচালনা, চিত্রনাট্য লেখার হাত, অভিনয় সবকিছুই ছিল দুর্দান্ত। উনার অভাব পূরণ হবার না।’

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান লিখেছেন, ‘এবার সত্যি সত্যি চলে গেলেন দেশবরেণ্য চলচ্চিত্রকার আমজাদ হোসেন। ব্যাংককের বামরুণগ্রাদ হসপিটালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন (ইন্নালিল্লাহে…রাজেউন) আমি তার আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি।’

চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক লিখেছেন, ‘বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সম্মানিত প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক,বিশিষ্ট চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব জনাব আমজাদ হোসেন আজ বেলা ২:৫৭ টায় থাইল্যান্ড এ চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন।ইন্নালিলাহে………. রাজিউন।’

অভিনেত্রী ফারিয়া শাহরিন আমজাদ হোসেনের একটি ছবি ফেসবুকে দিয়ে লিখেছেন, ‘ভালো থাকবেন। রিপ। আইরিন তানি লিখেছেন, শান্তিতে থাকবেন ওপারে। অভিনেত্রী নুসরাত জাহান রুহি লিখেছেন, আমজাদ স্যার আপনার শূন্যতা পুরন হবার নয়। মহান সৃষ্টি কর্তা আপনাকে বেহেশত দান করুন। আমিন। অ্যানি খান লিখেছেন, কিংবদন্তি চলচ্চিত্রকার আমজাদ হোসেন আর নেই। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।’

ব্রেন স্ট্রোক করে গত ১৮ নভেম্বর সকালে তেজগাঁয়ের ইমপালস হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন নির্মাতা আমজাদ হোসেন। হাসপাতালে ভর্তির পর থেকেই ছিলেন টানা লাইফ সাপোর্টে। প্রধানমন্ত্রীর সহায়তায় এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে ২৭ নভেম্বর দিবাগত রাতে নিয়ে যাওয়া হয় ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে। সেখানে প্রায় ১৭ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর মারা গেছেন এই কিংবদন্তি নির্মাতা।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »