মৌলভীবাজারে- মিথ্যা মামলায় হয়রানীর অভিযোগ ॥ তদন্তের দাবী » Leading News Portal : BartaBangla.com

বার্তাবাংলা ডেস্ক »

এস এ চৌধুরী,মৌলভীবাজার:: মৌলভীবাজারে-পূর্ব শত্র“তার জের ধরে এক ব্যবসায়ীর উপর মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানীর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে সরেজমিন তদন্তক্রমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবীতে মৌলভীবাজার পুলিশ সুপার বরাবরে লিখিত অভিযোগ প্রদান করা হয়েছে। যার অনুলিপি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, চিফ হুইপ, পুলিশের আইজিপিসহ বিভিন্ন দপ্তরে প্রেরণ করা হয়েছে।

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের মাঝেরছড়া গ্রামের মৃত চেরাগ মিয়ার পুত্র ব্যবসায়ী ও স্থানীয় জামে মসজিদের কোষাধ্যক্ষ শাহজাহান মিয়ার সাথে বিগত ১৯৯২ইং সন থেকে একই গ্রামের মৃত আং রেজাকের পুত্র লুদু মিয়া, আং বারী ও আং খালিকের বিরোধ ছিল। ২০০৯ইং সনে মাঝেরছড়া গ্রামের ছমু মিয়ার মেয়ে লাকী বেগম (১৪) কে বিবাহের প্রলোভন দিয়ে লুদু মিয়া তার ইজ্জত লুটে নিয়ে তাকে অস্বীকার করায় এলাকার গণ্যমান্য লোক সালিশে বসে লুদুর উপর ৬৪ হাজার টাকা জরিমানা করেন। লাকী বেগম তার ইজ্জতের মূল্য ও তার ঔরসজাত সন্তানের স্বীকৃতি না পাওয়ায় মৌলভীবাজার নারী শিশু আদালতে ১০/১১/২০০৯ইং তারিখে মামলা দায়ের করেন। এতে লুদু মিয়া হাজত বাস করেন। এই ঘটনার সত্যতা স্বীকার করায় ব্যবসায়ী শাহাজান মিয়ার সাথে লুদু মিয়া ও তার ভাইদের মূল আক্রোশের কারন। বিগত ০১/০১/২০১০ইং তারিখের লুদু মিয়ার ভাই আং বারী পূর্ব আক্রোশের শত্র“তায় ব্যবসায়ী শাহাজানের উপর কমলগঞ্জ থানায় একটি মিথ্যা ও হয়রানীমূলক মামলা দায়ের করেন। ঐ মামলার তদন্তকারী অফিসার এসআই সৈয়দ মাহবুব সরেজমিন তদন্তক্রমে ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে কোন স্বাক্ষী প্রমাণ না পাওয়ায় ব্যবসায়ীকে কোন হয়রানী করতে পারে নাই। আবারও পূর্বের শত্র“তার জের হিসাবে কমলগঞ্জ থানায় গত ৪ এপ্রিল তারিখে ব্যবসায়ী শাহাজান ও তার ভাইদের এবং তার লেবু বাগানের নৈশ প্রহরীকে আসামী করে একটি পানবরের পানের গাছ কাটার একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। লুদু মিয়া গংরা পূর্ব আক্রোশতার কারণে ব্যবসায়ীর ইজ্জতহানী ও আর্থিক ক্ষতিসাধন করার জন্য বার বার মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করছে বলে ব্যবসায়ী শাহাজান অভিযোগ করেন।

এ ব্যাপারে মাঝেরছড়া গ্রামের ব্যবসায়ী ও স্থানীয় জামে মসজিদের কোষাধ্যক্ষ শাহজাহান মিয়া সরেজমিন তদন্তক্রমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবীতে গতকাল মঙ্গলবার মৌলভীবাজার পুলিশ সুপার বরাবরে লিখিত অভিযোগ প্রদান করেন। যার অনুলিপি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, চিফ হুইপ, পুলিশের আইজিপি, ডিআইজি, জেলা প্রশাসক, দুর্ণীতি দমন বিভাগ, উপজেলা নির্বাহী অফিসারসহ বিভিন্ন দপ্তরে প্রেরণ করেন।

এ বিষয়ে প্রতিপক্ষ লুদু মিয়ার বক্তব্য জানার জন্য একাধিকবার চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

আমি ফারজানা চৌধুরী তন্বী। লেখালিখি করি ফারজানা তন্বী নামে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর করার পর আজ প্রায় পাঁচ বছর ধরে লেখালিখির সঙ্গেই আছি। বার্তাবাংলা’য় কাজ করছি সিনিয়র রিপোর্টার হিসেবে। আমার বিশেষ আগ্রহের ক্ষেত্র ফিচার, প্রযুক্তি আর লাইফস্টাইল। ভালো লাগে ভ্রমণ, বইপড়া, বাগান করা আর ইন্টারনেট নিয়ে পড়ে থাকা :)

মন্তব্য করুন »