বার্তাবাংলা ডেস্ক »

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে তাঁর বেইলি রোডের বাসায় সাক্ষাৎ করেছেন ব্রিটিশ হাইকমিশনার অ্যালিসন ব্লেইক। নির্বাচন সামনে রেখে সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে তাঁরা আলোচনা করেন।

সোমবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে ড. কামালের রাজধানীর বাসায় যান অ্যালিসন ব্লেইক। সন্ধ্যা ৬টা ২৩ মিনিটে তিনি বেরিয়ে যান। তবে তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেননি। ড. কামাল হোসেন সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন।

ড. কামাল বলেন, নির্বাচনে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছিল। একটি রায়ে কী বুঝে আদালত এটি বাতিল করে দিলেন। তত্ত্বাবধায়ক না করুক, নিরপেক্ষ সরকার করতে পারে।

ড. কামাল আরও বলেন, সরকার নিজেই প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে। তাই সরকার তো রেফারির ভূমিকায় থাকতে পারে না। খেলোয়াড় তো রেফারি হতে পারেন না। নিরপেক্ষ সরকার তাই জরুরি। নিরপেক্ষতা না থাকলে সুষ্ঠু নির্বাচন হয় না। সাত দফার কথাগুলো একসময় শেখ হাসিনা নিজেই দাবি করেছেন।

ব্রিটিশ হাইকমিশনারের সঙ্গে আলোচনার বিষয়ে জানতে চাইলে ড. কামাল বলেন, তাঁরা মাঝেমধ্যে দেখা করতে আসেন। দেশের সার্বিক পরিস্থিতি বিষয়ে জানতে চেয়েছেন। বিশেষ করে আগামী নির্বাচন নিয়ে জানতে চেয়েছেন। তাঁরাও সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচনের পক্ষে সব সময় কথা বলেন। ২০১৪-এর নির্বাচন নিয়েও আলোচনা হয়েছে। ১৫৪ জন বিনা ভোটে নির্বাচিত হওয়ার বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে।

সুষ্ঠু নির্বাচনের বিষয়ে ড. কামাল বলেন, ২০১৪ সালের নির্বাচনের পর দ্রুত সময়ের মধ্যে নির্বাচন দেওয়ার কথা ছিল, কিন্তু তা হয়নি। এখনো প্রতিযোগিতামূলক নির্বাচনের ব্যাপারে সরকার খুব একটা আগ্রহী বলে বিশ্বাস করা যায় না। এ সরকারের অধীনে নির্বাচন অবাধ হওয়া সম্ভব নয়। এ কারণেই সাত দফা দাবি নিয়ে তাঁরা সোচ্চার আছেন।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »