বার্তাবাংলা ডেস্ক »

মেসি জোড়া গোল করেছেন আর বার্সা হেরেছে এমনটা ঘটেনি কখনো। অথচ আজকেই সেই অসাধ্য কাজটি করে দেখালো স্প্যানিশ লিগের দল রিয়াল বেটিস। বার্সেলোনাকে তাদের ঘরের মাঠেই মেসির প্রত্যাবর্তনের রাতে ৩-৪ ব্যবধানে হারালো মাঝারি মানের দলটি।

ইনজুরি থেকে দীর্ঘদিন পর এদিন বার্সেলোনার হয়ে মাঠে নামেন মেসি। কৌতিনহোর ইনজুরি এবং দেম্বেলেকে দলে না রাখার মাশুল বেশ ভালভাবেই দিতে হলো বার্সা কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দেকে। ২০০৮ সালের পর প্রথমবারের মত বার্সাকে লিগে হারালো রিয়াল বেটিস। মূলত বেটিসের দলগত পারফরম্যান্সের পাশাপাশি বার্সার ভঙ্গুর ডিফেন্সই মেসিদের পরাজয় বরণ করে নিতে বাধ্য করে।

ম্যাচের প্রথমার্ধেই দুই গোলে এগিয়ে যায় বেটিস। ম্যাচের ২০ মিনিটে উইলিয়াম কার্ভালহোর বাড়ানো বলে ম্যাচে প্রথমবারের মত বেটিসকে এগিয়ে দেন জুনিয়র ফিরপো। ৩৪ মিনিটে আবারো বার্সার রক্ষণভাগকে বুড়ো আঙ্গুল দেখায় বেটিস। সাবেক বার্সা খেলোয়াড় ক্রিস্টিয়ান তেয়োর ক্রস থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন হোয়াকুইন। মেসি শুরু থেকে খেলেও প্রথমার্ধে কোন গোল করতে পারেননি।

বিরতি থেকে ফিরে কিছুটা স্বরূপে ফেরে বার্সা। ৬৬ মিনিটে আলবাকে ডিবক্সের ভেতর ফাউল করলে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন রেফারি। স্পট কিক থেকে বার্সার হয়ে এক গোল শোধ দেন মেসি। কিন্তু এই গোলের ঠিক ৩ মিনিট পর আবারো গোল খেয়ে বসে বার্সা। যাকে ধরা হচ্ছিল এবারের মৌসুমের অন্যতম সেরা গোলরক্ষক সেই স্টেগানের বাচ্চাসুলভ ভুলে লো সেলসো বেটিসকে ১-৩ ব্যবধানে এগিয়ে দেন।

২ গোলের ব্যবধানে পিছিয়ে থেকেও ম্যাচে ফিরতে মরিয়া হয়ে খেলতে থাকে বার্সা। ৭৯ মিনিটে মুনিরের বাড়ানো বলে গোল করে ব্যবধান ২-৩ করেন চিলিয়ান মিডফিল্ডার আর্তুরু ভিদাল। কিন্তু আবারো ডিফেন্সের ভুলে গোল খেয়ে বসে বার্সা। লেফট উইং ফিরপোর ক্রসে বার্সাকে ২০০২ সালের প্রথমবারের ৪ গোল হজম করার স্বাদ দেন সাবেক রিয়াল মাদ্রিদ ফুটবলার কানালেস।

ম্যাচের অন্তিম মুহূর্তে মেসি আরো একটি গোল করলেও বার্সার পরাজয় এড়ানোর জন্য তা যথেষ্ট ছিল না। মেসি জোড়া গোল করেছেন এমন কোন ম্যাচে সব রকম প্রতিযোগিতায় প্রথমবারের মত হারলো বার্সা। লা লিগায় এবারের মৌসুমের তৃতীয় হারটি নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়। অন্যদিকে ২০ বছর পর বার্সেলোনাকে তাদের মাটিতেই হারানোর সুখ স্মৃতি নিয়ে মাঠ ছাড়ে নব্য শক্তিধর ক্লাব রিয়াল বেটিস।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »