বার্তাবাংলা ডেস্ক »

কক্সবাজার সীমান্তে একদিনে তিন দফা গুলি ও দু’জনকে আহত করেছে মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী। এর প্রতিবাদে ঢাকায় নিযুক্ত দেশটির রাষ্ট্রদূত উ লুইনকে তলব করেছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। বুধবার তাকে তলব করে মন্ত্রণালয়।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, এ ধরনের ঘটনা রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সমস্যার সৃষ্টি করতে পারে। এজন্য মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে সতর্ক করা হয়েছে। তাকে লিখিত এবং মৌখিক দু’ভাবেই সতর্ক করা হয়েছে।

এসময় মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত উ লুইন জানিয়েছেন, তিনি বিষয়টির খোঁজ-খবর নেবেন এবং ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানাবেন।

গত রোববার (৪ নভেম্বর) দুপুরে কক্সবাজারের উখিয়ার পালংখালী সীমান্তের ভেতরে গুলি ছুড়ে মিয়ানমারের বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি)। এতে গুলিবিদ্ধ হন নুরুল ইসলাম নামের এক রোহিঙ্গা যুবক। তাকে উখিয়ার কুতুপালং রেড ক্রিসেন্ট ফিল্ড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এসময় আরও বেশ কয়েকজন আহত হয় বলে জানা গেছে।

সেদিন হঠাৎ করে বাংলাদেশের ভেতরে মিয়ানমারের বিজিপির গুলিবর্ষণের ঘটনায় সীমান্ত এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। এ সময় সীমান্ত এলাকায় অনেককে ছোটাছুটি করতে দেখা যায়।

ওইদিন কক্সবাজার বিজিবি-৩৪ ব্যাটালিয়য়েন উপ-অধিনায়ক মেজর ইকবাল আহমদ বলেন, এটি দুঃখজনক। বিষয়টি নিয়ে বিজিবির পক্ষ থেকে বিজিপির কাছে প্রতিবাদলিপি পাঠানো হয়েছে। এর আগেও সীমান্তের কাঁটাতারের বেড়া কাটার অভিযোগে বিজিপি বাংলাদেশে গুলি ছুড়েছে। তবে ওই সময় কেউ গুলিবিদ্ধ হয়নি। এবার গরু চরানো যুবককে কী কারণে গুলি করল সে বিষয়ে এখনও কোনো ব্যাখ্যা দেয়নি বিজিপি। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

এরপর বুধবার মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে তলব করে সতর্ক করলো বাংলাদেশ।

উল্লেখ্য, এর আগে গত মাসে বাংলাদেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনকে নিজেদের ভূখণ্ডের অংশ হিসেবে দাবি করায় মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে উ লুইন ও-কে তলব করে প্রতিবাদ জানিয়েছিল পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »