বার্তাবাংলা ডেস্ক »

ঘন কুয়াশার কারণে বিভিন্ন রুটে মঙ্গলবার রাত থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ থাকার পর বুধবার সকাল থেকে ফের চালু হয়েছে। ফেরি বন্ধ থাকার সময় ভোগান্তিতে পড়েন ঘাট পার হতে আসা শত শত মানুষ।

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে সকাল ৯টায় ফেরি চলাচল শুরু হয়। এর আগে মঙ্গলবার রাত ১২টা থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়। মাঝে রাত ৩টার দিকে ফেরি চালু হলেও সকাল ৬টার দিকে ফের তা বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ।

দৌলতদিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, এ রুটে বর্তমানে ১৭টি ফেরি চালু আছে।

এদিকে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে রাত ২টা থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ থাকার পর সকাল সোয়া ৮টার থেকে ফের চালু হয়েছে। এ সময় ঘন কুয়াশার কবলে মাঝ নদীতে যানবাহন নিয়ে আটকে থাকা ৪টি ফেরিও চালু করা হয়েছে।

এছাড়া শরীয়তপুর-চাঁদপুর হরিনাঘাট নৌরুটে মঙ্গলবার রাত ৩টা থেকে বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ফেরি চলাচল বন্ধ ছিল। এতে আটকা পড়েন পারাপারের অপেক্ষায় থাকা যাত্রীরা। তবে এখন ফেরি চলাচল স্বাভাবিক আছে বলে জানিয়েছেন শরীয়তপুর ফেরিঘাটের ম্যানেজার সাত্তার।

অপরদিকে লক্ষ্মীপুর-ভোলা নৌরুটে ঘন কুয়াশার কারণে ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। মঙ্গলবার রাত ১২টা থেকে দুর্ঘটনা এড়াতে কর্তৃপক্ষ ফেরি চলাচল বন্ধ রাখে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিসি) লক্ষ্মীপুর মজুচৌধুরীর হাট ফেরিঘাটের প্রান্তিক সহকারী রেজাউল কিরম রাজু বলেন, নির্ধারিত সময় রাত ১২টায় ৯টি ট্রাকসহ ১৫টি যানবাহন নিয়ে ফেরি ‘কনকচাঁপা’ ভোলায় যেতে প্রস্তুতি নেয়। কিন্তু ঘন কুয়াশার কারণে চলাচল বন্ধ রাখা হয়। কুয়াশা কেটে গেলে ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হবে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »