বার্তাবাংলা ডেস্ক »

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের সুযোগ রেখে সংশোধিত গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) সংশোধনীর অধ্যাদেশ জারি করেছেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। এর ফলে আগামী নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের সুযোগ থাকছে নির্বাচন কমিশনের।

রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব জয়নাল আবেদীন বলেন, ‘আরপিও সংশোধন অধ্যাদেশে মহামান্য রাষ্ট্রপতি স্বাক্ষর করেছেন। আইন মন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত গেজেট জারি করা হবে।’

ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ জানিয়েছেন, ‘আরপিও সংশোধন অধ্যাদেশে মহামান্য রাষ্ট্রপতি স্বাক্ষর করেছেন। দ্রুতই তার গেজেট জারি হবে। এক্ষেত্রে ইভিএম, অনলাইনে মনোনয়নপত্র দাখিল, ঋণখেলাপিদের মনোনয়ন দাখিলের আগ পর্যন্ত পুনঃতফসিলের সুযোগ রাখা হয়েছে।’

তফসিল ঘোষণার আগে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সিইসিসহ নির্বাচন কমিশনারদের দেখা করতে যাওয়ার আগের দিনই জারি হলো এই অধ্যাদেশ।

এর আগে গত সোমবার নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের সুযোগ রেখে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) সংশোধনের আইন অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভা বৈঠকে নির্বাচনী আইন ‘রিপ্রেজেন্টেশন অব দ্য পিপল (অ্যামেন্ডমেন্ট) অ্যাক্ট, ২০১৮’ এর খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এতে সভাপতিত্ব করেন।
বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম জানান, ‘এখন তো সংসদ আর পাওয়া যাবে না। এই আইনটি অর্ডিন্যান্স (অধ্যাদেশ) আকারে জারি হয়ে যাবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘খসড়া আইনে একই সঙ্গে ইভিএম অপব্যবহারের শাস্তি নির্ধারণ করা হয়েছে সর্বোচ্চ ৭ বছরের কারাদণ্ড।’

উল্লেখ্য, একাদশ সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক অঙ্গনের বড় একটি অংশের বিরোধিতার মধ্যেই ইভিএম ব্যবহারের সুযোগ রেখে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) সংশোধন হলো।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »