বার্তাবাংলা ডেস্ক »

coxsbazar20120501190712বার্তাবাংলা ডেস্ক :: বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহউদ্দিন আহমদকে গতরাতে ঢাকার গুলশান এলাকা থেকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা তাৎক্ষণিক রাস্তায় নেমে যানবাহন, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ভাঙচুর চালিয়েছে। ইট-পাটকেল নিক্ষেপ ও ককটেল বিস্ফোরণ করে বিভিন্ন স্থাপনায় হামলা করেছে। ওই সময় পুলিশের সঙ্গে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় দুই পুলিশসহ অন্তত ৩০ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এতে করে সর্বত্র আতংক ছড়িয়ে পড়ে। রাতে সমস্ত দোকান-পাঠ বন্ধ হয়ে যায়। শহরে বিজিবি মোতায়েন করা হয়। সালাহউদ্দিন আহমদকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে বৃহ¯পতিবার কক্সবাজার জেলায় সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে জেলা বিএনপি।
জানা গেছে, কক্সবাজার জেলার সন্তান সালাহ উদ্দিন আহমদের গ্রেপ্তারের খবর রাতে সর্বত্র ছড়িয়ে পড়লে জেলা শহর, সদর, ঈদগাঁও, রামু, চকরিয়া, পেকুয়া, মহেশখালি, কুতুবদিয়া, উখিয়া ও টেকনাফের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ মিছিল এবং প্রতিবাদ সভা করে বিএনপির নেতা-কর্মীরা। শহরের বাজারঘাটা ও লালদিঘীড় পাড়সহ বিভিন্ন স্থানে বিক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীরা রাত ১১টার দিকে সড়কে নেমে দোকান-পাঠ ও সড়ক পথে অবস্থান করা গাড়িতে ভাংচুর চালায়। রাত ১০টায় বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা করে জেলা ছাত্রদল। এছাড়া জেলা বিএনপি কার্যালয়ে আলাদা প্রতিবাদ সভা করে পৌর বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদল। চকরিয়ায় বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতারা পৌর এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা করে। সালাহ উদ্দিন আহমদের নিজ এলাকা পেকুয়ার বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক বিক্ষোভ প্রদর্শন ও সড়ক অবরোধ করে স্থানীয় বিএনপি এবং অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। কক্সবাজার জেলা বিএনপির সভাপতি শাহজাহান চৌধুরী জানান, সালাহ উদ্দিন আহমদ’কে আটক করার প্রতিবাদে আগামী বৃহ¯পতিবার কক্সবাজার জেলায় সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডাকা হয়েছে।
চকরিয়ায় বিএনপি নেতা-কর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল ও গাড়িতে ব্যাপক ভাংচুর করেছে। রাত ১০টার দিকে বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা পৌর শহরে দফায়-দফায় মিছিল করেছে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »