বার্তাবাংলা ডেস্ক »

প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলার পাশাপাশি ফ্যাশন সচেতন, এমন ব্যবহারকারীদের কথা মাথায় রেখে হুয়াওয়ে নোভা থ্রি আই আকর্ষণীয় মডেলের একটি স্মার্টফোন। হুয়াওয়ের নতুন চিপসেট কিরিন ৭১০, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ফিচারের চারটি ক্যামেরা এবং এর সঙ্গে লেটেস্ট ইএমইউআই ৮.২, সব মিলিয়ে তৃতীয় প্রজন্মের ডিভাইসটি দারুণ এক অনুষঙ্গ।

ট্রেন্ডি ডিজাইন: ট্রেন্ডি ডিজাইন এবং নিপুণ দক্ষতার মাধ্যমে এ ডিভাইসটিকে ডিজাইন করা হয়েছে। যা একে ফ্যাশনে রেখেছে এগিয়ে। এর ফুলভিউ ডিসপ্লে এবং সেই সঙ্গে আইরিস পার্পল কালার ডিভাইসটিকে দিয়েছে প্রিমিয়ার লুক।

ডিসপ্লে: নতুন প্রজন্মের ফুলভিউ ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে নোভা থ্রি আই স্মার্টফোনে। ৬.৩ ইঞ্চি ডিসপ্লে ফুল এইচডি প্লাস সমর্থিত এবং এর আসপেক্ট রেশিও ১৯.৫:৯ যা ৮৫ শতাংশ পর্যন্ত সঠিক রং নিশ্চিত করে।

চারটি এআই ক্যামেরায় সেরা ছবি: স্মার্টফোনটির সামনে রয়েছে দুটি ক্যামেরা এবং পেছনে আরও দুটি ক্যামেরা। সামনে থাকা ডুয়েল ফ্রন্ট ক্যামেরায় দারুণ সব ন্যাচারাল সেলফি তোলা সম্ভব। অন্যদিকে ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা ভিভিড এবং সতেজ ছবি উপহার দিতে সক্ষম।

২৪+২ এমপি ফ্রন্ট ক্যামেরা: ২৪ মেগাপিক্সেল এবং দুই মেগাপিক্সেলের দুটি ফ্রন্ট ক্যামেরায় ব্যবহারকারীকে অসাধারণ অভিজ্ঞতা দেবে হুয়াওয়ে নোভা থ্রি আই। দুটি ক্যামেরা এবং এর সঙ্গে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, এ দুয়ে মিলে ফটোগ্রাফি হবে আরও আনন্দময়।

প্রফেশনাল প্রোর্ট্রেট: প্রফেশনাল প্রোর্ট্রেট ছবি তোলার জন্য হুয়াওয়ে নোভা থ্রি আইতে আছে পাঁচটি ভিন্ন প্রফেশনাল লাইটিং ইফেক্ট। এর মধ্যে আছে সফট লাইটিং, বাটারফ্লাই লাইটিং এবং স্টেজ লাইটিং। এছাড়া হুয়াওয়ের ফেস মডেলিং প্রযুক্তি ব্যবহার করে স্মার্টফোনটি সহজেই সাবজেক্টের পাঁচটি ফেসিয়াল জোন শনাক্ত করতে পারে যেখানে বিউটিফিকেশনের প্রয়োজন পড়বে।

থ্রিডি কিউমোজি: মজার সেলফি তোলার জন্য হুয়াওয়ে নোভা থ্রি আইতে আছে বিশেষ ফিচার যা মুখের অভিব্যক্তি অনুযায়ী থ্রিডি কিউমোজি তৈরি করে যা জিআইএফ কিংবা ভিডিও আকারে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করার সুবিধা রয়েছে।

ফ্লাগশিপ ক্লাস পারফর্মেন্স: সফটওয়্যার এবং হার্ডওয়্যারের নিখুঁত সমন্বয়ের মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের অসাধারণ অভিজ্ঞতা দেবে হুয়াওয়ে নোভা থ্রি আই। ইএমইউআই ৮.২ ছাড়াও কোয়াড কোর কিরিন ৭১০ চিপসেট, হুয়াওয়ের ১২ ন্যানোমিটার সিস্টেম অন চিপ প্রযুক্তি সব মিলিয়ে দুর্দান্ত স্মার্টফোন এটি। ৪ জিবি র‌্যাম এবং শক্তিশালী গেম স্যুট, সব মিলিয়ে গেমিংয়ে অসাধারণ অভিজ্ঞতা মিলবে স্মার্টফোনটিতে। এছাড়া জিপিইউ পারফর্মেন্স উন্নত করতে এতে ব্যবহার করা হয়েছে জিপিইউ টার্বো নামের বিশেষ প্রযুক্তি।

কোথায় পাবেন: ২৮ হাজার ৯৯০ টাকা দামের ফোনটি হুয়াওয়ের অনুমোদিত ব্র্যান্ড ও রিটেইলার শপে পাওয়া যাবে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »