বার্তাবাংলা ডেস্ক »

JUজাবি প্রতিনিধি :: শিক্ষক লাঞ্ছনার মাত্র দু’দিন পর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের যুগ্ম-সম্পাদক। আহত ছাত্রের নাম রেজাউল করিম রাজু। সে ইতিহাস বিভাগের ৩৫ তম ব্যাচের ছাত্র।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, সোমবার দুপুর ১২ টার দিকে প্রান্তিক গেইটে এ ঘটনা ঘটে। রক্তাক্ত অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে সাভারের এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউ’তে ভর্তি করান। পরবর্তীতে সন্ধ্যায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এদিকে এই হামলার ঘটনায় জাবি ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাওলাদার মুহিব্বুল্লাহকে দায়ী করে ৭২ ঘন্টার মধ্যে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদল। ছাত্রদলের দাবি ৫-৬ জনের একটি দল পাইপ ও রড দ্বারা তাকে গুরুতর আহত করে।

হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করে হাওলাদার মুহিব্বুল্লাহ বলেন, আমি এ হামলার সাথে জড়িত নই। কে বা কারা এটা ঘটিয়েছে তা আমার জানা নেই।

ছাত্রলীগ সভাপতি মাহমুদুর রহমান জনি বলেন, ছাত্রদল নাশকতার উদ্দেশ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রান্তিক গেইটের সামনে একত্রিত হলে সাধারন শিক্ষার্থীরা তাদের প্রতিহত করে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রক্টর ড. সোহেল আহমেদ বলেন, এখনো কোন লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে জাবি ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেছে জাবি শাখা ছাত্রলীগ। সোমবার বিকেল ৫টায় ক্যাফেটেরিয়ার ছাদে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের প্রচার সম্পাদক শহীদুল ইসলাম সাইফ।

এতে বলা হয়, গত ৬ এপ্রিল রাতের ঘটনায়  ছাত্রলীগ সাধারন সম্পাদক রাজিব আহমেদ রাসেলকে জড়িয়ে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের নিন্দা জ্ঞাপন করা হয়। এছাড়া এতে ছাত্রলীগের কোন কর্মী জড়িত থাকলে তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানানো হয়।

এক প্রশ্নের জবাবে সাধারন সম্পাদক দাবি করেন ঘটনার দিন গভীর রাতে উপাচার্যের বাসভবনে কোন ভাংচুরের ঘটনা ঘটেনি।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »