বার্তাবাংলা ডেস্ক »

পাহাড়ের গুহায় বসবাস, গাছের ডালে ঘর, কুঁড়েঘর, মাটির ঘর, টিনের ঘর, বাঁশের ঘর, কংক্রিটের ঘরসহ অনেক ঘরই দেখেছি আমরা। গতবছর লালমনিরহাটের কালীগঞ্জের নওদাবাস গ্রামে প্লাস্টিকের বোতল দিয়েও ঘর তৈরি করেছিলেন রাশেদুল আলম ও আছমা বেগম। কিন্তু চকলেট দিয়ে বানানো ঘর কি কখনো দেখেছেন? না দেখলে এবার দেখবেন। শুধু তা-ই নয়, সেই ঘরে থাকতেও পারবেন। এমনকি সেই চকলেটও খেতে পারবেন।

জানা যায়, ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সেভরিসে চকলেটের বাড়ি তৈরি করা হয়েছে। পুরো বাড়িটি চকলেটের তৈরি। বাড়িটির ছাদ, মেঝে, ফায়ারপ্লেস, ঘড়ি, বই এমনকি ঝাড়বাতি পর্যন্ত চকলেট দিয়ে তৈরি। এছাড়া বাড়ির সামনের পুকুর এবং ফুলও চকলেটের তৈরি।

চকলেটের এই বাড়িতে থাকাও যায়! খাওয়া যায় সেই চকলেট! এটি কোন স্বপ্ন নয়, বাস্তব। আন্তর্জাতিক হোটেল রিজারভেশন ওয়েবসাইট বুকিং ডটকমে পাওয়া গেছে এমন বাড়ি। প্যারিসের খুব কাছেই সেভরিসে তৈরি করা হয়েছে এ কটেজ।

অভিনব চকলেট বাড়িটি তৈরি করেছেন চকলেটশিল্পী জন লিউক ডেক্লুজিউ। আগামী ৫ ও ৬ অক্টোবর রাতে থাকার সুযোগ রয়েছে এ কটেজে। অগ্রিম বুকিং করলেই থাকা যাবে সেখানে। একইসঙ্গে মোট চার জন থাকতে পারবেন এ কটেজে।

জন লিউক ডেক্লুজিউ বলেন, ‘১৮ বর্গ মিটার চকলেট কটেজ তৈরি করতে ১.৫ টন চকলেট লেগেছে। কটেজের সিলিংয়ে যে শ্যান্ডেলিয়র ঝুলছে, সেটিও চকলেটের তৈরি।’

তিনি বলেন, ‘শুধু ব্রাউন চকলেটই নয়, হোয়াইট চকলেটও ব্যবহার করা হয়েছে। আমার বিশ্বাস এই বাড়িতে থাকতে পেরে অতিথিরা অনেক খুশি হবেন।’

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »