বার্তাবাংলা ডেস্ক »

হবিগঞ্জের সদর উপজেলায় সাজেরা খাতুন (৫০) নামে এক সৌদি প্রবাসীর স্ত্রীর হাত-পা বাঁধা মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার বিকেলে উপজেলার পইল নাজিরপুর গ্রাম থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত সাজেরা ওই এলাকার সৌদি প্রবাসী সঞ্জব আলীর স্ত্রী।পুলিশ জানায়, সঞ্জব আলী ও তার একমাত্র ছেলে সৈয়দ মিয়া সৌদি আরবে থাকেন। ২ মেয়ে বিয়ে দিয়েছেন। ছেলের বউ পপি আক্তারকে নিয়ে তিনি বাড়িতে থাকেন। গত রোববার পপি পার্শ্ববর্তী শরিফপুর গ্রামে বাবার বাড়িতে যান। তখন থেকে তিনি বাড়িতে একাই থাকতেন। শনিবার তার মেয়ে পাশের বাড়ির রেজিয়াকে ফোন করে জানায় তার মা ফোন ধরছেন না। পরে রেজিয়া এগিয়ে ঘরের জানালা দিয়ে দেখতে পান সাজেরা খাতুনের দেহ খাটে আর পা মাটিতে পড়ে আছে। দেখেই তিনি চিৎকার শুরু করলে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে বাড়ির পেছনের দরজায় খোলা পান।

এদিকে খবর পেয়ে পইল ইউপি চেয়ারম্যান সৈয়দ মঈনুল হক আরিফ ঘটনাস্থলে ছুটে যান। তিনি থানায় খবর দিলে সদর থানার ওসি অপারেশন প্রজিৎ কুমার দাশের নেতৃত্বে এসআই সাহিদ ও এসআই পলাশ মরদেহ উদ্ধার করেন।ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সদর থানার ওসি (অপারেশন) প্রজিৎ কুমার দাশ জানান, মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তার হাত-পা বাঁধা ও মুখে কাপড় গোঁজা ছিল। তবে বিকেল পর্যন্ত তার সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করা হয়নি।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »