বার্তাবাংলা ডেস্ক »

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ফরিদ মিয়া ওরফে ফেন্সি ফরিদ নামে তালিকাভুক্ত এক শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন।এ ঘটনায় দুই র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল ও গুলিসহ ইয়াবা উদ্ধার করেছে র‌্যাব। বুধবার ভোর রাতে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার শিমরাইল এলাকায় তাজ জুট মিলের সামনে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

র‌্যাব-১১ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক আলেপ উদ্দিন জানান, ভোরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১১’র একটি দল মাদক উদ্ধারের জন্য সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল এলাকায় তাজ জুট মিলের সামনে অভিযান চালায়। এ সময় র্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক ব্যবসায়ীরা র্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। র‌্যাবও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়।গোলাগুলির এক পর্যায়ে ফেন্সি ফরিদ গুলিবিদ্ধ হলে তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়। গোলাগুলির সময় আহত হন র‌্যাবের সৈনিক মোরছালিম ও কনস্টেবল আশরাফুল হক।পরে গুলিবিদ্ধ ফরিদকে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এছাড়া র‌্যাবের আহত দুই সদস্যকে সেখানে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।নিহত ফরিদ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার তারাব পৌরসভার হাটিপাড়া এলাকার মৃত বালাই মিয়ার ছেলে। তার বিরুদ্ধে জেলার বিভিন্ন থানায় মাদক ও অস্ত্রসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের অভিযোগে ১৮টি মামলা রয়েছে।ফরিদ রূপগঞ্জ থানা ও র‌্যাব-১১’র তালিকার এক নম্বর মাদক ব্যবসায়ী। ফরিদ মিয়া দীর্ঘদিন যাবত নারায়ণগঞ্জে ফেনসিডিল ব্যবসার একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তার করে আসছিলেন। পাশাপাশি ইয়াবার ব্যবসার নিয়ন্ত্রণও নেন। এ কারণেই তিনি জেলার মাদক বিক্রেতা ও মাদকসেবীদের কাছে ফেন্সি ফরিদ নামে পরিচিতি লাভ করেন।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »