বার্তাবাংলা ডেস্ক »

যুক্তরাষ্ট্র সফরে দুর্দান্ত খেলছে নেইমারের ব্রাজিল। স্থায়ীয়ভাবে অধিনায়কত্ব পেয়ে নিজ দলকে দারুণভাবে এগিয়ে নিচ্ছেন নেইমার। শুক্রবার নেইমার-ফিরমিনোর গোলে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে ২-০ গোলে জিতেছিল ব্রাজিল। চার দিন পর এল সালভাদরের বিপক্ষে নেইমারের নৈপুণ্যে ৫-০ গোলের বিশাল জয় পেয়েছে তিতের শিষ্যরা।

ফেডেক্স ফিল্ডে বাংলাদেশ সময় বুধবার সকালে তুলনামূলক দূর্বল এল সালভাদরের মুখোমুখি হয় ব্রাজিল। ম্যাচে জয় পেতে খুব একটা বেগ পেতে হয়নি পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের। দলের পক্ষে জোড়া গোল করে মাত্রই দ্বিতীয় ম্যাচ খেলতে নামা রিচার্লিসন। একটি করে গোল করেন নেইমার, কৌতিনহো ও মারকুইনহোস। তবে পুরো ম্যাচ জুড়েই দুর্দান্ত ছিলেন নেইমার।

ম্যাচে প্রথম গোল পেতে মাত্র ৪ মিনিট অপেক্ষা করতে হয় ব্রাজিলকে। প্রথমবারের মতো শুরুর একাদশে খেলতে নামা রিচার্লিসনকে ডি -বক্সের মধ্যে ফাউল করা হলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। স্পট কিক থেকে অনায়াসেই ম্যাচের প্রথম গোলটি করেন ব্রাজিল অধিনায়ক নেইমার।

১৬তম মিনিটে আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে নিজের প্রথম গোলের দেখা পান রিচার্লিসন। নেইমারের বাড়ানো বল ধরে অসাধারণ এক বাঁকানো শটে লক্ষ্যভেদ করেন ২১ বছর বয়সী উদীয়মান তারকা। ম্যাচের দৈর্ঘ্য আধ-ঘণ্টা হতেই ব্যবধান আরও বাড়ান ফিলিপে কৌতিনহো।

দুর্দান্ত প্রতি আক্রমণে বল নিয়ে এগিয়ে যান নেইমার। সফল ড্রিবলে নেইমার বল বাড়ান ডানদিকে। সেখান থেকে বল পেয়ে যান বাম পাশে থাকা কৌতিনহো। সেখান থেকে নিজের স্বভাবসুলভ ভঙ্গিমায় ডি-বক্সের বাইরে থেকে দুর্দান্ত এক শটে গোল করেন বার্সেলোনার তারকা কৌতিনহো।

বিরতি থেকে ফিরে নিজের দ্বিতীয় ও ম্যাচের হালি গোল করেন রিচার্লিসন। এর আগে অবশ্য বিরতিতে যাওয়ার আগেই চতুর্থ গোলের সুযোগ পেয়েছিলেন নেইমার। নিজের ব্যর্থতায় লক্ষ্যভেদ হয়নি সে সুযোগে।

৫০তম মিনিটে ডি-বক্সে প্রতিপক্ষের ফাউলে কৌতিনহো পড়ে গেলে ফাঁকায় বল পেয়ে যান রিচার্লিসন। বাম পায়ের শটে কাছের পোস্ট ঘেঁষে লক্ষ্যভেদ করেন ২১ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড। আর ম্যাচ শেষের একদম আগমুহূর্তে ম্যাচের ৯০তম মিনিটে পঞ্চম ও শেষ গোলটি করেন মারকুইনহোস।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »