নবীগঞ্জে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত অর্ধশত

নবীগঞ্জ

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ পৌর এলাকায় সিএনজি চালককে মারধরের ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়েছে। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ৫০ জন আহত হয়েছেন । গুরুতর আহত অবস্থায় ছয়জনকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অপর আহতদের নবীগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। সংঘর্ষের সময় শহরের মাছ বাজার, পোল্ট্রি ফার্ম, রেস্টুরেন্টসহ অন্তত ১০টি দোকান ঘর ভাঙচুর করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় শহরজুড়ে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। সংঘর্ষ এড়াতে পুরো শহর এবং গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, বুধবার বিকেলে বানিয়াচং উপজেলার কাগাপাশা থেকে নবীগঞ্জ শহরে ফিরছিলেন সিএনজিচালিত অটোরিকশা চালক কাওছার মিয়া। তিনি কানাইপুর শ্মশানঘাট এলাকায় পৌঁছামাত্র রাজাবাদ থানা পয়েন্টের সিএনজি স্ট্যান্ডের সিএনজি চালকরা একত্রিত হয়ে তাকে মারধর করে।

এ ঘটনার জের ধরে বৃহস্পতিবার মারধরের ব্যাপারে রাজাবাদ পয়েন্টের ম্যানেজারের কাছে চরগাও সিএনজি স্ট্যান্ডের ম্যানেজার আব্দুল আমিন চৌধুরীসহ কয়েকজন গেলে তাদের সঙ্গে বাকবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে চরগাও এবং রাজাবাদ উভয় গ্রামের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে । প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী চলে এ সংঘর্ষ। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে ।

নবীগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম আতাউর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।