আখাউড়া-আগরতলায় স্থলবন্দর দিয়ে মাছ রফতানি বন্ধ

আখাউড়া

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দরে রফতানি বাণিজ্যে নতুন সংকট দেখা দি‌য়ে‌ছে। ‘চাঁদার দাবিতে’ রফতানি হওয়া পণ্য আটকে দিয়েছেন ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের বর্তমান ক্ষমতাসীন দল ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) কয়েকজন নেতা। এর ফলে গতকাল বুধবার আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ভারতে রফতানি হওয়া সব মাছ পচে গেছে।

এদিন বন্দর দিয়ে রফতানি হওয়া মাছ, সিমেন্ট ও তুলাসহ অন্যান্য পণ্য সন্ধ্যা পর্যন্ত আগরতলা বন্দরে আটকে রেখেছিলেন বিজেপি নেতারা। পরে আলোচনার মাধ্যমে রাতে পণ্যগুলো বন্দর থেকে ছাড়া হয়। তবে স্থায়ী সমাধান না হওয়ায় আপাতত মাছ রফতানি বন্ধ রেখেছে আখাউড়া স্থলবন্দরের ব্যবসায়ীরা।

আখাউড়া স্থলবন্দর শুল্ক স্টেশন ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গতকাল বুধবার সকালে বিভিন্ন প্রজাতির ছোট-বড় মিলিয়ে ১০ টন ৪৯০ কেজি মাছ ভারতে রফতানি করা হয়। সারাদিন বন্দরে আটকে থাকায় সবগুলো মাছই পচে গেছে। এর ফলে ভারতীয় ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি নিজেদের লোকসানের কথাও জানিয়েছেন আখাউড়া স্থলবন্দরের ব্যবসায়ীরা।

আখাউড়া স্থলবন্দর আমদানি-রফতানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম বলেন, ব্যবসায়ীদের স‌ঙ্গে চাঁদা নিয়ে বিজেপি এবং কংগ্রেস থেকে বিজেপিতে যোগ দেয়া কিছু নেতার সমস্য চলছে। এর ফলে তারা আমাদের রফতানি করা পণ্য বন্দরে আটকে দিয়েছিলেন। বিষয়টি নিয়ে আমরা আলোচনার পর বুধবার রাতে পণ্যবোঝাই ট্রাকগুলো বন্দর থেকে ছাড়া হয়। তবে সারাদিন আটকে থাকায় মাছগুলো পচে গেছে। আজকে আমরা মাছ রফতানি বন্ধ রেখেছি। বিষয়টি স্থায়ী সমাধান না হওয়া পর্যন্ত আমরা মাছ রফতানি করবো না। তবে অন্যান্য পণ্য রফতানি কার্যক্রম স্বাভাবিক রয়েছে।