বার্তাবাংলা ডেস্ক »

মাখনের রয়েছে নানা উপকারিতা। এটি খাবারকে সুস্বাদু ও সুঘ্রাণযুক্ত করতে সাহায্য করে। তবে অনেকেরই ধারণা মাখন খেলে ওজন বেড়ে যায়। বরং পরিমিত মাত্রায় মাখন খেলে তা শরীরের জন্য বেশ উপকারী। এমনকি রান্নার কাজেও সাধারণ তেলের বদলে মাখন ব্যবহারের পরামর্শ দেন অনেক চিকিৎসক।

বাড়িতে তৈরি সাদা মাখনে সাধারণত লবণ খুব কম থাকে। বাজারজাত মাখনে প্রচুর লবণ। সে কারণে বাড়িতে তৈরি সাদা মাখন স্বাস্থ্যকর। মাখনে অতিরিক্ত লবণ থাকলে রক্ত সঞ্চালনে সমস্যা হয়।

বাজারে যে মাখন পাওযা যায়, তা খেলে ওজন বাড়ার সম্ভাবনা যথেষ্ট বেশি। কিন্তু বাড়িতে তৈরি সাদা মাখন ওজন কমাতে সাহায্য করে। সাদা মাখনে সোডিয়ামের পরিমাণ কম থাকায় ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে।

মাখনে রয়েছে সেলেনিয়াম আর ভিটামিন ই। এই দুটি পদার্থের কারণেই মাখন নিয়মিত খেলে ত্বক এক্কেবারে সুন্দর ও উজ্জ্বল হয়। আর সপ্তাহে অন্তত দুইবার এই মাখন মুখে মাখলে ত্বক অত্যন্ত ভালো থাকে।

মাখনে রয়েছে প্রচুর ‘গুড ক্যালরি’। স্বাস্থ্যকর এই ক্যালরির জন্য সাদা মাখন তাই সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য।

মাখন ‘জয়েন্ট পেইন’ ও বাতের ব্যথা কমাতে সাহায্য করে। কারণ মাখনের আণবিক গঠনের কারণেই তা চর্বি শোষণ করে, আন্তর্জাতিক পত্রিকায় প্রকাশিত বেশ কয়েকটি গবেষণাপত্রে এমনটাই উল্লেখ করা হয়েছে।

মাখনে আছে অ্যারাকিডোনিক অ্যাসিড যা মস্তিষ্কের কর্ম ক্ষমতা বাড়ায়। শিশুদের বুদ্ধিবৃত্তির ক্ষেত্রে এটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

সকালের নাস্তায় অল্প করে মাখন নিয়মিত খেলে হৃদরোগ এড়ানো সম্ভব।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »