ইভিএম নিয়ে সরকারের ঘরেই আগুন জ্বলছে

মান্না

ইভিএম নিয়ে সরকারের ঘরেই আগুন জ্বলছে বলে মন্তব্য করেছেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না। তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনের একজন সদস্য সরাসরি বলেছেন, ‘এই পদ্ধতি দেয়া যাবে না’, কিন্তু সরকার তা উপেক্ষা করে ৪ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ইভিএম ব্যবহারে জোর দিচ্ছে।

সরকার ইভিএমে এতো জোর দিচ্ছে কেন, জানেন- জনগণের প্রতি এই প্রশ্ন রেখে এর উত্তরে মান্না নিজেই বলেন, ‘কারণ তারা (সরকার) জানে, ইভিএম (ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন) হ্যাক করা যায়, সকল মানুষকে ফাঁকি দিয়ে সরকার এর মাধ্যমে ১০০টি আসনে জয় নিশ্চিত করার কৌশল করে রেখেছে। শুধু সরকার নয়, সরকারের নির্বাচন কমিশনও জনগণের সঙ্গে ফোরটোয়েন্টি করছে।’

শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে ‘গণতন্ত্র ও খালেদা জিয়ার মুক্তি আইনজীবী পরিষদের’ ব্যানারে আয়োজিত ‘গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার জাতীয় মহাঐক্য ও বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি’ শীর্ষক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

বিএনপি নেতাদের উদ্দেশ্যে মান্না বলেন, ‘গতবার আপনারা নির্বাচন বর্জন করেছেন, তারা (আওয়ামী লীগ জোট) ১৫৩ আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়। এবার নির্বাচনে যদি অংশ নেন, তারা পাস করবে কীভাবে? তাই ইভিএমের মাধ্যমে ১০০ আসন নিশ্চিত করছে, বাকিটা অন্য কৌশলে হবে।’

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক বলেন, আবেগ দিয়ে কখনো যুদ্ধে জয় লাভ করা যায় না। খালেদা জিয়া ছাড়া এই নির্বাচন হবে না, নির্বাচনের আলোচনাও করা যাবে না, আমরা নির্বাচনে যাবো না। এটা বলে লাভ নেই। সরকার নিজেও চায় আপনারা যেন নির্বাচনে না যান। কারণ, তারা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতার নির্বাচন চায়।

আইনজীবী পরিষদের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আপনারা বেগম খালেদা জিয়াকে বলেছেন, যাই হোক না কেন, আপনাকে এক মাসের বেশি রাখতে (কারাগারে) পারবে না। কিন্তু ছয় মাসের বেশি সময় পার হয়ে গেছে, আপনারা তাকে বের করতে পারেননি। আপনারা গ্যারেন্টি দিতে পারবেন কি? যে তাকে নির্বাচনের আগে বের করে আনতে পারবেন? যদি না পারেন, আপনারা নির্বাচনে যাবেন না। সরকার তো তাই চায়।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ড.রফিকুল ইসলাম মেহেদীর সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দিন আহমদ ,বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন প্রমুখ বক্তৃতা করেন।