বার্তাবাংলা ডেস্ক »

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, ‘এমন আন্দোলন হবে যাতে সরকারের সব ষড়যন্ত্র বঙ্গোপসাগরে ভেসে যাবে।’

আন্তর্জাতিক গুম দিবস উপলক্ষে বৃহস্পতিবার বিকেলে সুপ্রিম কোর্টের শহীদ শফিউর রহমান মিলনায়তনে বিএনপি আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এই মন্তব্য করেন।

মোশাররফ বলেন, ‘আরপিও সংশোধনে কমিশনের লোকজনই একমত নয়, আওয়ামী লীগ ছাড়া কেউ ইভিএম ব্যবহারের পক্ষে ছিল না। তারপরও কমিশন এটা ব্যবহারের উদ্যোগ নিয়েছে। আমরা এর নিন্দা জানাই।’

তিনি বলেন, ‘একজন নির্বাচন কমিশনার ‘নোট অব ডিসেন্ট’ দিয়েছেন। কিন্তু তারপরও কমিশন ইভিএম ব্যবহারের জন্য আরপিও সংশোধনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অথচ প্রধান নির্বাচন কমিশনার রাজনৈতিক দল না চাইলে ইভিএম ব্যবহার করা হবে না বলে জানিয়েছিলেন। সরকারের চাপ এবং কতটা বশংবদ হলে তারা নিজেরা নিজেদের কথাও রাখতে পারছে না।’

নিরপেক্ষ সরকার, নির্বাচনের আগে সংসদ ভেঙে দেয়া, সেনা মোতায়েনসহ নির্বাচনে অংশ নেয়ার শর্তের কথা তুলে ধরে মোশাররফ বলেন, ‘আর পাতানো নির্বাচন হবে না। দেশের জনগণ তা হতে দেবে না। বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখেও কোনো নির্বাচন হবে না।’

সরকারের উদ্দেশে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে তিনি বলেন, ‘যদি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে চান তাহলে আমাদের দাবি মেনে নিয়ে নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন। অন্যথায় এমন আন্দোলন হবে যাতে সরকারের সব ষড়যন্ত্র বঙ্গোপসাগরে ভেসে যাবে।’

গুম দিবসের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আজ আন্তর্জাতিক গুম দিবস। সরকারের এটা পালন করার কথা। কিন্তু তাদের সেই মুখ নেই। কারণ তারা দীর্ঘদিন রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে গুম করছে।’

গুমের শিকার নেতাকর্মীদের স্বজনদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আর বেশিদিন কাঁদতে হবে না। যারা এসবের সঙ্গে জড়িত দেশের মানুষ তাদের আর চায় না।’

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সাবেক ছাত্র নেতা শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানীর সঞ্চালনায় ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, ঢাকা মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, শহিদুল ইসলাম বাবুল, মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান আসাদ, ডা. সায়ান্ত সাখাওয়াত প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »