বার্তাবাংলা ডেস্ক »

আন্তর্জাতিক গুম প্রতিরোধ দিবস আজ (৩০ আগস্ট)। গুম বা অপহরণের শিকার ব্যক্তিদের স্মরণে বিশ্বব্যাপী আন্তর্জাতিক এ দিবসটি পালন করা হচ্ছে।

২০০৬ সালের ২০ ডিসেম্বর গুম হওয়া থেকে সব ব্যক্তির সুরার জন্য আন্তর্জাতিক সনদ জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে গৃহীত হয়। ২০১০ সালের ডিসেম্বরে ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন ফর প্রটেকশন অব অল পারসন্স অ্যাগেইনস্ট এনফোর্সড ডিসঅ্যাপিয়্যারেন্স এ আন্তর্জাতিক সনদ কার্যকর হয়, তাতে ৩০ আগস্টকে আন্তর্জাতিক গুম প্রতিরোধ দিবস ঘোষণা করা হয়।

২০১১ সাল থেকে ৩০ আগস্ট গুম হওয়া মানুষগুলোকে স্মরণ এবং সেই সাথে তাদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানানোর জন্য দিবসটি বিশ্বব্যাপী পালিত হয়ে আসছে।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের তথ্য মতে, ২০১১ সালে গৃহযুদ্ধ শুরুর পর সিরিয়ায় এ পর্যন্ত প্রায় ৮৫ হাজার মানুষ গুম হয়েছে। তাদের মধ্যে বিরোধী দলীয় রাজনীতিবিদ ও মানবাধিকারকর্মীর পাশাপাশি রয়েছেন বেসামরিক লোকজনও। বেসামরিক লোকজন গুম হচ্ছে শ্রীলঙ্কা, গাম্বিয়া, বসনিয়াসহ অন্য দেশগুলোতেও।

লাতিন আমেরিকার দেশগুলোতে ১৯৭০ ও ৮০-র দশকে কেবল অবৈধ অস্ত্র কারবারি ও ভিন্নমতাবলম্বীরাই গুম হতো। কিন্তু বর্তমানে নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠী, মাদক কারবারি ও মানবপাচাকারীদের মধ্যেও গুমের ঘটনা ঘটছে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »