সেলফি তুললে ত্বকের ক্ষতি

সেলফি

ছবি তুলে দেয়ার জন্য কাউকে ধরাধরি নেই, শুধু ফোনটা বের করে নিজের ছবি নিজেই তুলে নেয়া। আধুনিক মানুষের একাকিত্বের এই অংশীদারের ডাকনাম ‘সেলফি’। সেলফি তোলাটা শখের থেকেও বেশি মাত্রা ছাড়িয়ে গেছে বহুদিন। কোথাও ঘুরতে গেলে, মন খারাপ লাগলে, মন ভালো লাগলে- কখন তোলা হয়না সেলফি! অথচ এই সেলফিরই রয়েছে ক্ষতিকর দিক, যার প্রভাব সরাসরি পড়ে আপনার ত্বকের উপর।

চর্মরোগ বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, সেলফির প্রতি অত্যাধিক আকর্ষণের ফল অত্যন্ত ক্ষতিকর হতে পারে আমাদের ত্বকের জন্য। বারবার সেলফি তোলার ফলে স্মার্টফোনের আলো ও রেডিয়েশন সরাসরি পড়ে মুখের উপর। এর ফলে ত্বকে বলিরেখাও দেখা দিতে পারে। যার ফলে অকালেই বয়স্ক দেখায়।

ব্রিটিশ চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ সিমন জোয়াকির মতে, মুখের কোন দিক বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তা দেখেই চিকিৎসকরা বলে দিতে পারেন আপনি ঠিক কোন হাতে ফোন ধরে সেলফি তোলেন। যারা খুব বেশি সেলফি তোলেন তারা এখনই সতর্ক হয়ে যান। কারণ, স্মার্টফোনের স্ক্রিন থেকে নির্গত নীল আলোও আমাদের ত্বকের পক্ষে যথেষ্ট ক্ষতিকর।

সিমনের সঙ্গে এক মত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওবাগি স্কিন হেলথ ইন্সটিটিউটের প্রতিষ্ঠাতা চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ জেন ওবাগিও। তিনি বলেন, ‘‘মোবাইল ফোন থেকে নির্গত তড়িচ্চুম্বকিয় বিকিরণ (ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক রেডিয়েশন) ত্বকের ডিএনএ-র গঠন নষ্ট করে দেয়। ফলে ত্বকে বলিরেখা ফুটে ওঠে। মুখের ত্বক হয়ে ওঠে নির্জীব, রুক্ষ। এছাড়াও, আলোর চৌম্বক ক্ষেত্রের (ম্যাগনেটিক ফিল্ড) প্রভাবে ত্বকের আর্দ্রতার ভারসাম্য নষ্ট হয়ে যায়।’’ তাই অকালে চেহারায় বার্দ্ধক্যের ছাপ পড়া রোধ করতে চাইলে মাত্রাতিরিক্ত সেলফি তোলা থেকে নিজেকে বিরত রাখুন।