বার্তাবাংলা ডেস্ক »

নিরাপদ সড়কের দাবি ও কোটা সংস্কারের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে সহিংস হামলার ঘটনায় গণগ্রেফতার বন্ধ করা এবং পুলিশের কার্যক্রমের অপব্যবহারের তদন্ত দাবি করেছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচ। সংগঠনটির পক্ষ থেকে এক বিবৃতির মাধ্যমে এ দাবি করা হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, সম্প্রতি প্রতিবাদকারী শিক্ষার্থী এবং সাংবাদিকদের যেভাবে গ্রেফতার করা হচ্ছে -তা বাংলাদেশে ভীতির পরিবেশ সৃষ্টি করেছে এবং স্বাধীন মতপ্রকাশের ধারাটি বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছে।

বিবৃতিতে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ অবিলম্বে ঢালাও গ্রেফতার বন্ধ করা, সহিংস হামলাকারীদের বিচারের আওতায় নিয়ে আসা এবং নিজ বক্তব্য প্রকাশ করায় যাদের কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে তাদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানানো হয়েছে।

মানবাধিকার সংগঠন এশিয়ান হিউম্যান রাইটস কমিশন বাংলাদেশের প্রেসিডেন্টের কাছে লিখিত এক বার্তায় গণগ্রেফতার বন্ধ করা এবং পুলিশের কার্যক্রমের অপব্যবহারের তদন্ত দাবিও করা হয়েছে।

সড়ক দুর্ঘটনায় দুই শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় গড়ে ওঠা ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ আন্দোলনে সহিংস ঘটনা ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উসকানির অভিযোগে বিভিন্ন থানায় মোট ৫১টি মামলা করা হয়েছে। এসব মামলায় গতকাল (বুধবার) সকাল পর্যন্ত মোট ৯৭ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এর মধ্যে দণ্ডবিধি ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে দায়ের করা মোট ৪৩ মামলায় ৮১ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »