বার্তাবাংলা ডেস্ক »

শেষ হয়েছে ট্রাফিক সপ্তাহ। আর এ সুযোগেই ফিটনেসবিহীন গাড়িগুলো রাস্তায় নামানো হয়েছে। আবার কদিন পরেই ঈদ। সেসময় ঘরমুখো মানুষের যাত্রা নির্বিঘ্ন রাস্তায় পণ্যবাহী যান চলাচল বন্ধ থাকবে। ফলে পণ্যবাহী যানের সংখ্যাও বেড়েছে। এতে ঈদের আগেই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে সৃষ্টি হয়েছে তীব্র যানজট।

মঙ্গলবার ভোর থেকে শুরু হওয়া এ যানজট বৃহস্পতিবার পর্যন্ত টানা তিন দিন অব্যাহত রয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোরে দাউদকান্দির গোমতী সেতুর টোলপ্লাজা এলাকা থেকে ইলিয়টগঞ্জ পর্যন্ত প্রায় ২০ কিলোমিটার এলাকায় দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়। টানা তিন দিনের যানজটে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রী ও চালকরা।

যানজট স্থায়ী না হলেও ঢাকা-কুমিল্লার ২ ঘণ্টার রাস্তার যাতায়াতে সময় লাগছে ৫-৬ ঘণ্টা। আগামীকাল শুক্রবার আরও যানজটের আশঙ্কা করছে থানা ও হাইওয়ে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ১০টার দিকে দাউদকান্দি মডেল থানার ওসি (তদন্ত) নুরুল ইসলাম জানান, ট্রাফিক সপ্তাহে মামলার ভয়ে ফিটনেসবিহীন অনেক গাড়ি রাস্তায় নামানো হয়নি। গত ২ দিন ধরে রাস্তায় নামানো হয়েছে এসব গাড়ি। এছড়াও ঈদের ৩ দিন আগে থেকে পণ্যবাহী যানবাহন চলাচল বন্ধ রাখা হবে বলে এসব গাড়ির চাপও বেড়ে গেছে। সেতু এলাকায় সৃষ্টি হওয়া যানজট ফোর লেনে ছড়িয়ে পড়েছে বলেও জানান তিনি।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »