বার্তাবাংলা ডেস্ক »

সিরিয়ায় জঙ্গি ঘাঁটি হিসাবে পরিচিত ইদলিব প্রদেশের  সারমাদা শহরে রোবরার একটি অস্ত্র গুদামে ভয়াবহ বিস্ফোরণে কমপক্ষে ৩৯ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে বহু সাধারণ মানুষ। নিহতদের মধ্যে ১২টি শিশু রয়েছে। এছাড়া বহু মানুষ নিখোঁজ রয়েছে বলে জানা গেছে। তাৎক্ষনিকভাবে বিস্ফোরনের কারণ জানা যায় নি।

বেশ কয়েকটি মানবাধিকার সংগঠন এই খবর জানান। মূলত জঙ্গিদের হয়ে কাজ করে এমন কোনও গ্রুপ এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সিরিয়ান অবজারভেটরির প্রধান রামি আবদেল রহমান জানান, তুরস্ক সীমান্তবর্তী সারমাদা শহরের একটি আবাসিক ভবনে বিস্ফোরণটি ঘটেছে। এতে মোট দুটি ছয়তলা ভবন ধ্বংস হয়। ভবন দুটি সাধারণ লোকজনে ভর্তি ছিল। তারা ধ্বংসস্তুপে চাঁপা পড়েছে। তিনি জানান, বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে। কারণ আহতদের মধ্যে অনেকের অবস্থা আশংকাজনক এবং অনেকে ধ্বংস্তুপের মধ্যে আটকা পড়ে আছে। এছাড়া, অনেকে এখনও নিখোঁজ রয়েছে। বিস্ফোরণের পর পরই উদ্ধারকর্মীরা বুলডোজার দিয়ে ধ্বংসাবশেষ সরিয়ে আটকেপড়া লোকজনদের উদ্ধার করছে।

 

সিরিয়ান অবজারভেটরি বলছে, অস্ত্র গুদামটি স্থানীয় জঙ্গি সংগঠন হায়াত তাহরির আশ-শামের অধীনে ছিল। ইদলিব প্রদেশের বেশিরভাগই হায়াত তাহরির আশ-শাম জঙ্গিদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। তবে আইএস জঙ্গিদেরও সেখানে কিছু কিছু তৎপরতা রয়েছে। এবং মাঝে মধ্যেই দু গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। কোনও দুই গ্রুপের মধ্যে হওয়া ভয়ঙ্কর সংঘর্ষে এত বড় বিস্ফোরণ ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »