বার্তাবাংলা ডেস্ক »

চট্টগ্রামের আনোয়ারায় ‘বন্দুকযুদ্ধ’ ও মাগুরার মহম্মদপুরে ‘গোলাগুলিতে’ দুই ব্যক্তি নিহত হয়েছেন বলে দাবি করেছে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার রাতে এ দুটি ঘটনা ঘটে। নিহত দুই ব্যক্তির নামেই একাধিক মামলা থাকার কথা বলেছেন সংশ্লিষ্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা (ওসি)।

আনোয়ারায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ব্যক্তির নাম নাসির হোসেন মামুন (৩৫)। পুলিশের ভাষ্য, নিহত ব্যক্তি সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত ছিলেন। ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন আনোয়ারা থানার ওসি দুলাল মাহমুদ।

ওসির ভাষ্য, গতকাল দিবাগত রাত দেড়টার দিকে উপজেলার বারাসত ইউনিয়নের দুধকুমড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বন্দুকযুদ্ধের আগে দুপুরে নাসির গ্রেপ্তার হন। তাঁর বিরুদ্ধে খুন, ধর্ষণ, মাদক, চাঁদাবাজি ও অস্ত্রের ১৮টি মামলা রয়েছে। পরে তাঁর কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে রাতে অস্ত্র উদ্ধারে যায় পুলিশ। নাসিরের সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। পরে নাসিরকে গুলিবদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানে হয়।

পুলিশের তথ্যমতে, মাগুরায় দুই দল ডাকাতের মধ্যে গোলাগুলিতে নিহত ব্যক্তির নাম আবুল বাশার (৪০)। তাঁর বাড়ি মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার রামপুর গ্রামে। গতকাল দিবাগত রাত দুইটার দিকে মহম্মদপুর উপজেলার বালুখালী ইউনিয়নের বিল্লোপাড়া মাঠে দুই দল ডাকাতের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনায় ঘটে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন মহম্মদপুর থানার ওসি তরিকুল ইসলাম।

ওসি বলেন, নিহত আবুল বাশারের নামে চুরি-ডাকাতি মিলিয়ে ১২টি মামলা রয়েছে। গতকাল রাতে এলাকাবাসী গোলাগুলির খবর পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে একজনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে। পরে তাঁকে নিয়ে হাসপাতালে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে চারটি গুলি, তিনটি গুলির খোসা ও চারটি রামদা উদ্ধার করেছে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »