বার্তাবাংলা ডেস্ক »

দিনাজপুরের বীরগঞ্জে প্রতিবেশীকে হত্যার পর গণপিটুনিতে মাদকসক্ত এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছেন আরও দুই জন। বৃহস্পতিবার ভোরে উপজেলার জেলখানা মোড়ে এই ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- বীরগঞ্জ উপজেলার পৌর শহরের ৯নং ওয়ার্ডের জেলখানা মোড় এলাকার মৃত কাশেম আলীর ছেলে সুরুজ আলী (৪০) ও একই এলাকার তারা মিয়ার ছেলে রবিউল ইসলাম (৩২)।

এছাড়া আহতরা হলেন- বীরগঞ্জ উপজেলার হাটখোলা এলাকার মৃত মধু মিয়ার ছেলে শহিদ (৫০) ও তার মেয়ে। আহত শহিদকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে ও মেয়েকে বীরগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে মেয়ের নাম জানা যায়নি।

জানা যায়, উপজেলার পৌর শহরের ৯নং ওয়ার্ডের জেলখানা মোড় এলাকার তারা মিয়ার ছেলে রবিউল ইসলাম একজন মাদকাসক্ত যুবক। কিছুদিন থেকে সে বিভিন্ন ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটিয়ে আসছিল।

বৃহস্পতিবার ভোরে রবিউল ইসলাম কোনো কারণ ছাড়াই প্রতিবেশী সুরুজ আলীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। এরপর হাটখোলা এলাকার শহিদ (৫০) ও তার মেয়েকে কুপিয়ে আহত করে পালিয়ে যাচ্ছিল। এ সময় তাকে ১৩ মাইল গড়েয়া এলাকায় জনগণ আটক করে নিয়ে আসে।

সকালে খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকার লোকজন রবিউলকে গণপিটুনি দেয়। এতে তার মৃত্যু হয়। পরে বিক্ষুদ্ধ জনতা রবিউল ইসলামের মরদেহ আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

বীরগঞ্জ থানা পুলিশের ওসি শাকিলা পারভীন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »