হরতাল-অবরোধ শুরু, টিএসসি থেকে মিছিল যাচ্ছে পল্টনে » Leading News Portal : BartaBangla.com

বার্তাবাংলা ডেস্ক »

jot somabesবার্তাবাংলা ডেস্ক :: হেফাজতে ইসলামের ঢাকামুখী লংমার্চের প্রতিবাদ এবং জামায়াত-শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবিতে শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে ২৩টি সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের ডাকা হরতাল চলছে। আর এ হরতালের সমর্থনে শনিবার সকাল পৌনে ১০টায় জাতীয় পতাকা নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি থেকে মিছিল বের করা হয়। এতে নেতৃত্ব দিচ্ছেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি নাসির উদ্দীন ইউসুফ।মিছিলটি পল্টন অভিমুখে যাচ্ছে।

সকাল ৯টার দিকে তিনি বলেন, টিএসসি থেকে হরতালের সমর্থনে মিছিল বের হবে। মতিঝিলের চারপাশ ঘেরাও করবে হরতালকারীরা। বিজয়নগর, পল্টন, গুলিম্তান, চানখারপুল, মৎস্য ভবন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এলাকায় অবস্থান নেবে হরতাল সমর্থকেরা।

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটসহ ২৩টি সংগঠন বৃহস্পতিবার এ হরতালের ডাক দেয়। বাম রাজনৈতিক দলগুলো, সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম, গণজাগরণ মঞ্চ এবং বেশ কিছু সামাজিক-সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠন এতে সমর্থন দিয়েছে।

ছুটির দিনে ডাকা এ ব্যতিক্রমী হরতাল শুরু হলে সন্ধ্যা থেকে ঢাকার রাস্তায় বাস, ব্যক্তিগত গাড়িসহ যান চলাচল একেবারেই কমে যায়। রাজধানীর বাস টার্মিনালগুলো থেকে দূরপাল্লার কোনো বাস ছাড়েনি। সদরঘাট থেকে লঞ্চ চলাচলও বন্ধ ছিল। তবে রাজপথে রিকশা ও বেশ কিছু অটোরিকশা চলেছে। লংমার্চ কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার কারণে শুক্রবার সকাল থেকেই রাজধানীর সঙ্গে বাইরের জেলাগুলোর সড়ক যোগাযোগ কার্যত বিচ্ছিন্ন ছিল।

শনিবারও একই অবস্থা বিরাজ করছে। ঢাকায় গণপরিবহনসহ কোনো ধরনের গাড়ি চলছেনা। তবে অল্প কিছু সিএনজি অটোরিক্সা, অটো আর রিক্সা চলাচল করছে।

অন্যদিকে গণজাগরণ মঞ্চের ডাকা ২২ ঘণ্টার দেশব্যাপী অবরোধ চলবে শুক্রবার সন্ধ্যা ছয়টা থেকে শনিবার বিকেল চারটা পর্যন্ত। অবরোধ শেষে বিকেল চারটায় গণজাগরণ চত্বরে অনুষ্ঠিত হবে মহাসমাবেশ।

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »