বার্তাবাংলা ডেস্ক »

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে দেশজুড়ে শুরু হওয়া ট্রাফিক সপ্তাহের প্রথম দু’দিনে মামলা বেড়েছে চার গুণ। চট্টগ্রাম নগরী ও জেলায় ট্রাফিক আইন অমান্য করায় গত দু’দিনে ২ হাজার ৬২০টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আটক করা হয়েছে বিভিন্ন শ্রেণির ২২৩টি যানবাহন।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক) কুসুম দেওয়ান‘ট্রাফিক সপ্তাহের দ্বিতীয় দিন সোমবার (৬ আগস্ট) সিএমপির উত্তর ও বন্দর জোনে মোট মামলা দায়ের হয়েছে ১ হাজার ১৫টি এবং আটক করা হয়েছে ৬০টি যানবাহন। এছাড়া দুই জোনে জরিমানা আদায় হয়েছে মোট ৪ লাখ ৩ হাজার ২৫০ টাকা। যা অন্য যে কোনো দিনের চাইতে অনেক বেশি।’

এদিকে নগর ও জেলা পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ সূত্র জানিয়েছে, ট্রাফিক সপ্তাহের প্রথম দু’দিনে ২ হাজার ৬২০টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আটক করা হয়েছে বিভিন্ন শ্রেণির ২২৩টি যানবাহন। সোমবার চট্টগ্রামে এক হাজার ৩১০টি যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। আটক করা হয়েছে ১১৮টি যানবাহন। এর মধ্যে শুধুমাত্র নগর পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের দুই জোন মিলিয়ে মোট মামলা দায়ের হয়েছে এক হাজার ১৫টি। আটক করা হয়েছে ৬০টি যানবাহন। এর মধ্যে উত্তর জোনে মামলা হয়েছে ৫৯১টি। আর যানবাহন আটক হয়েছে ৩৫টি। আর বন্দর জোনে মামলা হয়েছে ৪২৪টি।

অপরদিকে, জেলায় মোট মামলা হয়েছে ২৯৫টি। আর বিভিন্ন অভিযোগে ৫৮টি যানবাহন আটক করা হয়েছে।

এছাড়া ট্রাফিক সপ্তাহ শুরুর প্রথম দিন রোববার (৫ আগস্ট) সিএমপির উত্তর ও বন্দর জোনে মোট মামলা দায়ের হয়েছে এক হাজার ৪৭টি এবং আটক করা হয়েছে ৬৪টি যানবাহন। আটক যানবাহনের মধ্যে ৫২টি মোটরসাইকেল ও বাকিগুলো সিএনজিচালিত অটোরিকশাসহ অন্যান্য যানবাহন। এর মধ্যে উত্তর জোনে মামলা হয়েছে ৫৯৫টি এবং যানবাহন আটক হয়েছে ৩৫টি। আর বন্দর জোনে মামলা হয়েছে ৪৯২টি এবং যানবাহন আটক হয়েছে ২৯টি। এছাড়া দুই জোনে ওইদিন জরিমানা আদায় হয়েছে দুই লাখ ৯২ হাজার ৭০০ টাকা।

একইভাবে জেলা পুলিশও ট্রাফিক সপ্তাহের প্রথম দিনে মোট ২৬৩টি যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা করে। নানা অভিযোগে আটক করে ৪১টি যানবাহন।

সিএমপির ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ কক্ষে কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশের সদস্য ওমর ফারুক  ‘সোমবার সারাদিনে নগরীতে ১ হাজার ১৫টি মামলা হয়েছে। গাড়িতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র না থাকা ও ফিটনেসবিহীন হওয়ায় এসব মামলা করা হয়।’

সাধারণত প্রতিদিন দুই বিভাগ (উত্তর ও বন্দর জোন) মিলে সর্বোচ্চ ৩০০ মামলা হয় বলে তিনি জানান।

জেলা পুলিশের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মীর নজরুল ইসলাম ‘ট্রাফিক সপ্তাহের দ্বিতীয় দিনে জেলায় মোট ২৯৫টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়া মোট ৫৮টি যানবাহন আটক করা হয়েছে। স্বাভাবিকভাবে একদিন এত মামলা হয় না।’

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »