বার্তাবাংলা ডেস্ক »

টানা বৃষ্টি আর ভারতের উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে ফেনীর ফুলগাজী ও পরশুরামে নতুন করে ১০ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। প্রথম দফার বন্যায় বেডিবাঁধগুলো খোলা থাকায় পঞ্চম দফায় খুব সহজে পানি ঢুকে এলাকাগুলো প্লাবিত হচ্ছে। বর্তমানে মুহুরী নদীর পানি বিপদসীমার ১০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

সূত্রে জানা গেছে, ফুলগাজী ও পরশুরামে পাহাড়ি ঢলের কারণে মুহুরী নদীর ভাঙা ২৮টি স্থান দিয়ে পানি ঢুকে ফুলগাজী ও পরশুরাম উপজেলার রতনপুর, দুর্গাপুর, মির্জানগর, চিথলিয়াসহ ১০ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে কৃষকদের ফসলি জমি, পুকুরের মাছসহ রাস্তাঘাটের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

এদিকে প্রবল স্রোতে তলিয়ে যাওয়া রাস্তার ওপর অস্থায়ী সাঁকো নির্মাণ করে পারাপার হচ্ছেন স্থানীয়রা।

দুর্গাপুর বড় বাড়ির বাসিন্দা মুকুল আক্তার বলেন, ৮ম বারের মতো বন্যার পানিতে তাদের বাড়ি প্লাবিত হয়েছে। পানির স্রোতে ঘরের আশপাশের মাটি তুলে সরে গেছে। ঘরটি ঝুঁকিতে রয়েছে। অনেক পরিবার এলাকা ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছে।
শফিউল ইসলাম বলেন, কাঁচা ঘরবাড়ি ধসে পড়ছে, সন্তানরা স্কুলে যেতে পারছে না। গবাদি পশু নিয়ে মানুষ সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। আমরা ত্রাণ চাই না, বাঁধের স্থায়ী সমাধান চাই।

ফুলগাজী উপজেলা ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, বন্যার স্থায়ী সমাধান টেকসই বাঁধ নির্মাণে ইতোমধ্যে সার্ভে সম্পন্ন হয়েছে। শুকনো মৌসুম এলে কাজ শুরু হবে। এখন ক্ষতিগ্রস্তদের সরকারের পক্ষ থেকে ত্রাণ সহায়তা দেয়া হচ্ছে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »