বার্তাবাংলা ডেস্ক »

ঠিক যেন বলিউড বা হলিউডের সিনেমার চুরির টানটান দৃশ্যের মতো! যে দৃশ্যগুলো এতটাই স্নায়ু উত্তেজনা বাড়িয়ে দেয় এই বুঝি ধরা পড়ে গেল! ধরা তো দূরের কথা সবার অলক্ষ্যে মূল্যবান বস্তুটি কখন যে উধাও হয়েছে তা ঘুণাক্ষরেও টের পায় না নিরাপত্তা রক্ষীরা।

যখন তাদের ‘ঘুম ভাঙে’, ততক্ষণে চম্পট দেয় চোর! এমনই হুবহু দৃশ্য বাস্তবের সেলুলয়েডে ধরা পড়ল সুইডেনের স্টকহোমে। খোয়া গেল শতাব্দী প্রাচীন মূল্যবান দুটি সোনার মুকুট এবং একটি রাজদণ্ড। ধারণা করা হচ্ছে, এসব সামগ্রী ছিল ষষ্ঠদশ শতাব্দীর সুইডেনের রাজা নবম কার্ল এবং রানি ক্রিস্টিনার।

কিন্তু কীভাবে চুরি গেল এই মূল্যবান সামগ্রী? বুধবার দেশটির পুলিশ জানিয়েছে, ষষ্ঠদশ শতাব্দীর বেশ কিছু মূল্যবান জিনিসের প্রদর্শনী হয়েছে স্টকহোমের একটি গির্জায়। এর মধ্যে ছিল রাজপরিবারের মুকুট দু’টি। সোনার এই মুকুটে সাজানো রয়েছে একাধিক মূল্যবান পাথর ও মুক্তা।
পুলিস বলছে, দর্শকদের ভিড়ের মধ্যে লুট করে নিয়ে গেছে দুই চোর। তাদের শনাক্ত না করতে পারলেও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, গির্জা থেকে রুদ্ধশ্বাসে বেরিয়ে মালারেন লেকে স্পিডবোট নিয়ে উধাও হয়ে যায় চোরচক্র।

স্টকহোমে মালারেন লেকের ৭৪ মাইল ঘিরে রয়েছে একাধিক দ্বীপ। অভিযুক্তদের খুঁজে বের করাও পুলিশের জন্য চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। যদিও পুলিশের দাবি, এই ঐতিহাসিক জিনিসগুলো অমূল্য। এসব বিক্রি করতে সমস্যায় পড়বে চোর চক্র। তবে মুকুটের সোনা গলিয়ে বিক্রি করে দেয়ার আশঙ্কাও উড়িয়ে দিচ্ছে না স্টকহোম পুলিশ।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »