তেজপাতার অনেক গুণ

তেজপাতা

রান্নায় সুগন্ধ আনতে তেজপাতা ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এই তেজপাতারই রয়েছে অনেক গুণ। উদ্ভিদ বিজ্ঞানীদের মতে, তেজপাতার গুণ এমনই যা অনেক অসুখের সঙ্গেও লড়তে সাহায্য করে আমাদের। এছাড়াও দৈনন্দিন জীবনে তেজপাতার উপকার অনেকটাই।

আমেরিকার ‘ন্যাশনাল লাইব্রেরি অব মেডিসিন’-এ প্রকাশিত রিপোর্ট অনুসারে, প্রতিদিন ১-৩ গ্রাম তেজপাতার ধোঁয়া শরীরে প্রবেশ করলে তার এলিমেসিন ইনসুলিনের মাত্রা বাড়াতে সাহায্য করে। ডায়াবিটিকস রোগীদের জন্য তা অত্যন্ত উপকারী।

তেজপাতায় আছে বেশ কিছু জীবাণুনাশক উপাদান যা বাতাসে পোড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাতাসের ক্ষতিকারক ব্যাকটিরিয়াদের মেরে ফেলে। তেজপাতা পোড়ানোর পাশাপাশি রান্নায় দিলেও একই উপকার মেলে।

তেজপাতায় থাকা পিনাইন, সিনেওল ও এলিমেসিন মানসিক ক্লান্তি দূর করে কর্মক্ষমতা বাড়ায়।

সিনেওল ঠান্ডা লাগার প্রবণতা কমিয়ে ফুসফুসকে তাজা রাখে।

তেজপাতার অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি উপাদান শরীরের ক্ষত ও প্রদাহ কমায়।

এর ইগুয়েনাল যেকোনো রকমের যন্ত্রণা কমাতেও কার্যকরী। প্রতিদিনের রান্নায় তেজপাতার ব্যবহারও একই উপকার করে।

তেজপাতার অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটারি উপাদান শরীরের ক্ষত ও প্রদাহ কমায়।

তেজপাতার এলিমিসিন মনঃসংযোগ বাড়ায়। মস্তিষ্কের ক্লান্তি দূর করতেও সাহায্য করে।