বার্তাবাংলা ডেস্ক »

কুমিল্লা নগরীতে পৃথক ঘটনায় দুইজন খুন হয়েছেন। বৃহস্পতিবার ভোরে নগরীর কেন্দ্রীয় ঈদগা মাঠের পেছেনে এবং ডুমুরিয়া চাঁনপুর এলাকায় এসব ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার ভোরে নগরীর কেন্দ্রীয় ঈদগাহর পেছনে সিএনজি স্ট্যান্ডের পশ্চিম পাশে বিল্লাল হোসেনকে ছুরিকাঘাত করা হয়। এ সময় তার চিৎকারে টহলরত পুলিশ এগিয়ে গিয়ে ধাওয়া করে হৃদয় নামে এক যুবককে আটক করে। গুরুতর আহত বিল্লালকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত বিল্লাল হোসেন (৩০) নগরীর জামতলা এলাকার ছিদ্দিকুর রহমানের ছেলে।

নিহতের স্ত্রী হামিদা আক্তার জানান, তার স্বামী আগে স্বর্ণ কারিগর হিসেবে কাজ করলেও বেশ কিছু দিন ধরে তিনি পুলিশের সোর্স হিসেবে কাজ করতেন।

কোতয়ালি মডেল থানার এএসআই শাওন দাস জানান, আটক হৃদয় ছিনতাইকারী। তিনি নগরের কাপ্তানবাজার এলাকার মেহেদী হাসানের ছেলে। মরদেহ মর্গে নেয়া হয়েছে।

অপরদিকে নগরীর চাঁনপুর কেরানীবাড়ির পাশে পুরাতন গোমতী নদীর পাড় থেকে অজ্ঞাত যুবকের (২৪) মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোরে কোতয়ালি মডেল থানা পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে।

স্থানীয়রা জানান, রাতের কোনো এক সময় দুর্বৃত্তরা ওই যুবককে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে সেখানে মরদেহ ফেলে যায়। ভোরে স্থানীয় লোকজন হাঁটতে বেরিয়ে রক্তাক্ত মরদেহটি দেখতে পায়।

কোতয়ালি মডেল থানার ডিউটি অফিসার এসআই মুক্তা জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাটিয়েছে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »