বার্তাবাংলা ডেস্ক »

আশুলিয়ায় ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে স্কুল শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে জখম করেছে এক বখাটে। এ ঘটনায় স্থানীয়রা ওই বখাটে আব্দুল রাজ্জাককে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে। মঙ্গলবার আশুলিয়ার ভাদাইল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত শিক্ষার্থী স্থানীয় পিয়ার আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী এবং আটক আব্দুর রাজ্জাক গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ থানার শাহবাজ গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে। সে ভাদাইল এলাকার ছামাদ আলীর বাড়িতে ভাড়া থেকে দিনমজুরের কাজ করতো।

থানা পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, মঙ্গলবার ওই শিক্ষার্থী স্কুল থেকে বাসায় ফিরলে তাকে ঘরে একা পেয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে বখাটে রাজ্জাক। এ সময় ওই শিক্ষার্থী বাঁধা দিলে কাছে থাকা একটি বটি দিয়ে তাকে কুপিয়ে জখম করে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর চিৎকারে স্থানীয়রা পালিয়ে যাওয়ার সময় বখাটে রাজ্জাককে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেন।

এদিকে গুরুতর আহত অবস্থায় স্কুল শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে প্রথমে গণস্বাস্থ্য সমাজ ভিত্তিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকা সোহাওয়ার্দী মেডিকেল হাসপাতালে পাঠানো হয়।

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কবীর হোসেন বলেন, বখাটে ধর্ষককে আটক করে পুলিশে দিয়েছে জনতা। এ ঘটনায় আশুলিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করে আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »