বার্তাবাংলা ডেস্ক »

সৌদি আরবের জেদ্দায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন বাংলাদেশের ছোট পর্দার তরুণ পরিচালক এস এম রুবেল (৩৪)। জেদ্দায় বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল কার্যালয় থেকে জানা গেছে, ৪ জুলাই ভোরে কিং আবদুল আজিজ সড়কের সামারা কোর্ট ও রেড সি মলের মাঝামাঝি এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। কারখানায় যাওয়ার পথে পুলিশের গাড়ির সঙ্গে ধাক্কা লেগে একটি মিনিবাস সড়কের পাশে উল্টে যায়। ঘটনাস্থলেই পাঁচ বাংলাদেশি নিহত হন। এ ঘটনায় আহত হন আরও ১১ বাংলাদেশি। নিহত ও আহত সবাই মিনিবাসের যাত্রী ছিলেন। গাড়িতে ১৬ জন বাংলাদেশি নাগরিক ছিলেন। ওই সময় নিহত পাঁচজনের মধ্যে একজনের পরিচয় পাওয়া যায়। তবে পাসপোর্টের জটিলতার কারণে এস এম রুবেলকে তখন শনাক্ত করা যায়নি।

 

বাংলাদেশে এস এম রুবেলের পরিবারের লোকজন সপ্তাহ খানেক আগে তাঁর মৃত্যুর খবর পেয়েছে। ময়নাতদন্তের পর তাঁর মৃতদেহ জেদ্দায় স্থানীয় একটি হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হয়। কিছুদিনের মধ্যে ঢাকায় তাঁর মৃতদেহ এসে পৌঁছানোর কথা।

 

এস এম রুবেল বাংলাদেশে কয়েকজন জনপ্রিয় নাট্য নির্মাতার সঙ্গে কাজ করেছেন। তাঁদের মধ্যে অন্যতম কায়সার আহমেদ, সৈয়দ শাকিল ও অরণ্য আনোয়ার। এই তরুণ নির্মাতার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে কায়সার আহমেদ জানান, আট-নয় বছর আগে তাঁর সহকারী হিসেবে এস এম রুবেল দুটি নাটকে কাজ করেন। নাটক দুটি হলো ‘টমটম’ আর ‘টুনটুনি ভিলা’। অরণ্য আনোয়ার জানান, এস এম রুবেল তাঁর ক্যামেরা ইউনিটে কাজ করেছেন।

 

এস এম রুবেল নিজেই একটি নাটক পরিচালনা করেছেন। নাটকটির নাম ‘আমি তোমাকে ভালোবাসি’। অভিনয় করেছেন শতাব্দী ওয়াদুদ ও শশী। তবে নাটকটি এখনো প্রচারিত হয়নি।

 

ভাগ্য অন্বেষণে বছর দেড়েক আগে চাকরি নিয়ে জেদ্দায় যান এস এম রুবেল। তাঁর গ্রামের বাড়ি যশোর। তাঁর বাবা-মা, স্ত্রী ও দুই বছর বয়সের এক ছেলে আছেন ঢাকার ভাষানটেকে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »