বার্তাবাংলা ডেস্ক »

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক বলেছেন, আগে কোনো কারাখানায় ট্রেড ইউনিয়ন গঠনের জন্য ৩০ শতাংশ শ্রমিকের প্রয়োজন হতো। তবে এটা কমিয়ে ২০ শতাংশ নির্ধারণ করে নতুন আইন চূড়ান্ত করা হয়েছে। ‘শ্রম আইন (সংশোধন) ও ইপিজেড শ্রম আইন, ২০১৮’ আগস্টে মন্ত্রিসভার বৈঠকে উপস্থাপন করা হবে।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে নিজ দফতরে এক চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন মুজিবুল হক। সরকারের শ্রমিক কল্যাণ তহবিলে কোম্পানির গত বছরের লভ্যাংশের ১ কোটি ১৮ লাখ ৯ হাজার ১৮৪ টাকা জমা দিয়েছে ম্যারিকো বাংলাদেশ লিমিডেট। ম্যারিকো বাংলাদেশ লিমিডেটের একটি প্রতিনিধিদল শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মো. মুজিবুল হকের হাতে লভ্যাংশের এ টাকার তুলে দেন।

মুজিবুল হক বলেন, বাংলাদেশ শ্রম আইন সংশোধনের বিষয়টি চূড়ান্ত করা হয়েছে। আইনটি মন্ত্রিসভা কমিটিতে অনুমোদনের পর জাতীয় সংসদের আগামী অধিবেশ পাসের জন্য উত্থাপন করা হবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, দীর্ঘদিন আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে শ্রম আইনের অনেকগুলো ধারা, উপ-ধারা সংশোধনের বিষয়ে তিন পক্ষ অধিকাংশ ক্ষেত্রেই একমতে আসতে সক্ষম হয়েছি। তবে খুব কম সংখ্যক বিষয়ে মালিক- শ্রমিক পক্ষ একমত পোষণ করতে না পারায় সিদ্ধান্তের জন্য সরকারের ওপর আস্থা রেখেছেন। এসব বিষয়ে সরকার সব দিক বিবেচনায় নিয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »