বার্তাবাংলা ডেস্ক »

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ ফের বাড়ল। এবার ৮ আগস্ট পর্যন্ত তাঁর জামিনের মেয়াদ বাড়িয়েছেন হাইকোর্ট।

খালেদার আইনজীবীর আরজির পরিপ্রেক্ষিতে আজ মঙ্গলবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ ওই মেয়াদ বাড়ান। এ নিয়ে চতুর্থ দফায় তাঁর জামিনের মেয়াদ বাড়ল।

এদিকে এ মামলায় সাজার রায়ের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়ার করা আপিলের ওপর হাইকোর্টের একই বেঞ্চে শুনানি চলছিল। কিন্তু তাঁর পক্ষে এক দিনের সময় চেয়ে আবেদন করা হলে আদালত তা মঞ্জুর করেন। ওই মামলায় বিচারিক আদালতের রায়ের পাঁচ মাসের মাথায় ১২ জুলাই হাইকোর্টে এই আপিলের ওপর শুনানি শুরু হয়।

খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানিতে অংশ নেন আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী, জয়নুল আবেদীন, কায়সার কামাল ও মীর হেলাল। দুদকের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান।

পরে মীর হেলাল ওই মামলায় আগে হাইকোর্টের দেওয়া জামিনের মেয়াদ আজ শেষ হচ্ছে। এ অবস্থায় জামিনের মেয়াদ বাড়ানোর আরজির পরিপ্রেক্ষিতে আদালত ৮ আগস্ট পর্যন্ত মেয়াদ বাড়ান। আপিলের শুনানিতে এক দিনের সময় চাওয়া হলে এ সময় পর্যন্ত আদালত শুনানি মুলতবি করেন।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডাদেশ দিয়ে রায় দেন বিচারিক আদালত। এরপর থেকে নাজিমুদ্দিন রোডের পুরোনো কেন্দ্রীয় কারাগারে আছেন তিনি। এই সাজার রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করে জামিন আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ১২ মার্চ হাইকোর্ট থেকে চার মাসের জামিন পান তিনি, যা আপিল বিভাগে বহাল থাকে। এই জামিনের মেয়াদ বাড়াতে করা এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ১২ জুলাই হাইকোর্ট খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ ১৯ জুলাই পর্যন্ত বৃদ্ধি করেন। এর আগে ১৮ জুলাই ওই জামিনের মেয়াদ বাড়ানোর জন্য তার আইনজীবীরা আরজি জানালে হাইকোর্ট ২৬ জুলাই পর্যন্ত জামিনের মেয়াদ বাড়ান। সেদিনও জামিনের মেয়াদ বাড়াতে আবেদন করা হলে আদালত ৩১ জুলাই পর্যন্ত বাড়িয়েছিলেন।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »