বার্তাবাংলা ডেস্ক »

রকারি মেডিকেল কলেজের মতো বেসরকারি মেডিকেল কলেজে শিক্ষার্থী ভর্তি স্বাস্থ্য অধিদফতরের অধীনে করার চিন্তাভাবনা চলছে। বর্তমানে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অধীনে কেন্দ্রীয়ভাবে পরীক্ষা নেয়ার পর সরকারি মেডিকেল কলেজের জাতীয় মেধাতালিকা প্রকাশিত হয়। মেধাতালিকার ভিত্তিতে ৩১ টি সরকারি মেডিকেল কলেজে ছাত্রছাত্রী ভর্তি হয়। সরকারি মেডিকেল কলেজে ভর্তি প্রক্রিয়া শেষে বেসরকারি মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ স্ব-উদ্যোগে মেধাতালিকার ভিত্তিতে শিক্ষার্থী ভর্তি করে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের একাধিক দায়িত্বশীল কর্মকর্তা জানান, মেধাতালিকার ভিত্তিতে ছাত্রছাত্রী ভর্তির নিয়ম থাকলেও বেসরকারি মেডিকেল কলেজ প্রশাসন নানা অনিয়মের মাধ্যমে মেধাতালিকার বাইরে ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করে। মেধাতালিকায় থেকে ভর্তির সুযোগ পায়নি এমন শিক্ষার্থীর অভিযোগের সত্যতা পেয়েছেন তারা।

ওই কর্মকর্তারা জানান, বর্তমানে দেশে ৬৯টি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ রয়েছে। এসব মেডিকেল কলেজে প্রকৃত জাতীয় মেধাতালিকার ভিত্তিতে শিক্ষার্থী ভর্তি করতে চাইলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অধীনে শিক্ষার্থী ভর্তি করতে হবে।

তারা জানান, অর্ধেকের বেশি মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ সুষ্ঠুভাবে নিয়ম মেনে শিক্ষার্থী ভর্তি করে। ভর্তি প্রক্রিয়ায় অধিকতর স্বচ্ছতা আনতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অধীনে শিক্ষার্থী ভর্তিতে তাদের কারও আপত্তি নেই।

মঙ্গলবার (৩১ জুলাই) দুপুরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে চলতি বছর সরকারি-বেসরকারি মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজে ভর্তি-সংক্রান্ত এক সভা হবে। সেখানে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও অধিদফতরের দু-একজন কর্মকর্তা এ প্রস্তাবনা উত্থাপন করবেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (চিকিৎসা শিক্ষা ও স্বাস্থ্য জনশক্তি উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. আবদুর রশীদ বলেন, এ ধরনের প্রস্তাবনার ব্যাপারে তার জানা নেই। তবে প্রস্তাবনা সভায় উত্থাপিত হলে এর ভালোমন্দ নিয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, ভর্তি-সংক্রান্ত সভাটি সোমবার বিকেলে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও অনিবার্যকারণবশত সভার দিনক্ষণ আগামীকাল নির্ধারণ করা হয়।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »