গ্রীসে দাবানলে ২০ জনের মৃত্যু

দাবানল

গ্রীসে ভয়াবহ দাবানলে কমপক্ষে ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আন্তর্জাতিক সহযোগিতা চাচ্ছে কর্তৃপক্ষ। রাজধানী এথেন্সের কাছে অবস্থিত বাড়ি-ঘর ছেড়ে যাচ্ছে মানুষ। দাবানলের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন শত শত দমকল কর্মী।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, একটি নৌকায় আগুন ধরে যাওয়ার পর ১০ পর্যটক সেখান থেকে পালিয়ে যান। তাদের খোঁজে উদ্ধার অভিযান চলছে।

প্রধানমন্ত্রী অ্যালেক্সিস সিপ্রাস জানিয়েছেন, মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে যতটুকু সম্ভব আমরা কাজ করে যাব। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজনে সাড়া দিতে তিনি বসনিয়ায় তার রাষ্ট্রীয় সফর সংক্ষিপ্ত করে দেশে ফিরে এসেছেন। এই পরিস্থিতিকে অত্যন্ত কঠিন সময় বলে বর্ণনা করেছেন দমকল কর্মীরা।

মঙ্গলবার সকালে দাবানলে নিহতের সংখ্যা ২০ বলে নিশ্চিত করেছেন সরকারি মুখপাত্র দিমিত্রিশ জানাকোপোলাস।

দাবানলে নিহতদের মধ্যে অধিকাংশই অ্যাথেন্স থেকে ৪০ কিলোমিটার উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় সাগরতীরের মাটি রিসোর্টে আটকা পড়েছিলেন, কেউ নিজেদের বাড়ি-ঘরে বা গাড়ির ভেতরে আটকা পড়েছিলেন।

দাবানলের আগুন চারদিকে ছড়িয়ে পড়ায় ১০৪ জন আহত হয়েছে। এদের মধ্যে ১১ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। হতাহতের মধ্যে ১৬ শিশু রয়েছে।

দেশের ইকাভ জরুরি বিভাগের কর্মকর্তা মিলতিয়াদিস ভিরোনাস বলেন, ২৫ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। চারজন গুরুতর আহত হয়েছে।

সোমবার সকালেই অ্যাথেন্সের কাছাকাছি অবস্থিত উপকূলীয় এলাকার বাসিন্দাদের নিজেদের বাড়ি-ঘর ছেড়ে নিরাপদে আশ্রয় নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। হলিডে ক্যাম্প থেকেও শত শত শিশুকে নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।