বার্তাবাংলা ডেস্ক »

শতবর্ষ পার করেছেন সুইডেনের ডাগনি কার্লসন। ১০৫ পেরিয়েও নিয়মিত ব্লগ লিখছেন তিনি। ডাগনির ব্লগ ফ্যানও অনেক। বিভিন্ন বিষয়ে ব্লগ লিখে তিনি এখন সুইডেনের নামকরা ব্লগার। ব্লগ দুনিয়ায় সবাই তার থেকে বয়সে ছোট বলেই ধারণা। কারণ শতবর্ষ পার করা কোনো মানুষ আর নেই নেট দুনিয়ায়।

জানা যায়, ডাগনির শতবর্ষ পূর্তি উপলক্ষে আত্মীয়-স্বজনরা একটি কম্পিউটার উপহার দেন। সেটা পেয়েই তিনি দ্রুত চালানো শেখেন। তারপর ইন্টারনেট দুনিয়ায় প্রবেশ। বিভিন্ন সাইট ঘাঁটাঘাঁটি করা তার অভ্যাসে পরিণত হয়। দেখতে দেখতে ব্লগ দুনিয়ায় প্রবেশ করেন।

ডাগনি জানান, সকালে ঘুম থেকে উঠে কফি আর খবরের কাগজ হাতে নেন তিনি। ১০৫ বছর হলেও তার জীবনীশক্তি বা জানার ইচ্ছা প্রবল। মৃত্যুর কথা ভাবেন না তিনি। ডাগনির কৌতূহলের বিষয় অনেক। বাইরে কী ঘটছে তা জানার জন্য ইন্টারনেটেই কাটান ডাগনি। তখনই বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ব্লগ লেখেন।

ডাগনি আরও জানান, কম্পিউটার চালানো এখন তার অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। যে কারণে তিনি বান্ধবীদের সঙ্গে আলাপ করতে পারেন। খবর পড়তে পারেন। কম্পিউটার তার খুব ভালো লাগে। একদিন তিনি ব্লগ না লিখলে সবাই ভাবে– তিনি আর বেঁচে নেই।

ডিগনি নিজের ডিজিটাল ডায়েরি লেখেন। নাম ‘ব্লগা মেট মে’ অর্থাৎ আমার সঙ্গে ব্লগ করো। তার ব্লগ লেখার সময় কোনো নির্দিষ্ট বিষয়বস্তু নেই– যা মন চায়, তা-ই লিখতে পারেন। সুইডেনের প্রবীণদের পক্ষে এখন আদর্শ তার ব্লগ। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তাকে সম্মান জানানো হয়। এতে খুব খুশি হন ডাগনি। পুরস্কারের অর্থ প্রায় ২ হাজার ইউরো তার জন্মদিনের পার্টিতে খরচ করবেন।

ব্লগিং নিয়ে ডিগনি বলেন, ‘ভাবতেই পারি না- মাত্র নয়-দশ বছরের শিশুর দলও আমার লেখা পড়ে কমেন্ট লিখছে। তবে এটা মনে হয় যে, বুদ্ধিমান বুড়োমানুষও থাকতে পারে, সেটা অধিকাংশ মানুষ বিশ্বাস করে না।’

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »