বার্তাবাংলা ডেস্ক »

মঙ্গলবার ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেটাই কি ছিল মহেন্দ্র সিং ধোনির শেষ? টিভি ক্যামেরায় অদ্ভূত একটা ব্যাপার ধরা পড়ার পর এই প্রশ্নটা উঠছে জোরেসোরে। লিডসে তৃতীয় ওয়ানডের সঙ্গে সিরিজটাও হেরেছে ভারত। এমন ম্যাচের পর ধোনি কেন ম্যাচের বল সংরক্ষণ করতে চাইবেন?

ধোনি ম্যাচের বলটা নিয়েই ড্রেসিংরুমে ফিরেছেন। ঠিক এমনটি করেছিলেন ওভালে ২০১৪ সালের আগস্টে, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের শেষ টেস্টে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পরের সিরিজেই দুই টেস্ট খেলে সাদা পোশাককে বিদায় বলে দেন ভারতীয় দলের সর্বকালের সেরা এই উইকেটরক্ষক। এবারও কি তেমন কিছু হচ্ছে?

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সদ্য সমাপ্ত সিরিজে বিব্রত হওয়ার মতো অনেক কিছুই ঘটে গেছে ধোনির জন্য। সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে ৬৬ বলে খেলেছেন ৪২ রানের ইনিংস, দলের বিপর্যয়ের মুখে। তবু সমর্থকদের একটা আক্ষেপ হয়তো রয়েই গেছে। পাঁচ বছর আগের মারকুটে ধোনিকে পেলে হয়তো ভারতের সংগ্রহটা আরও বড় হতে পারতো, সুযোগ থাকতো সিরিজ জয়েরও।

লর্ডসে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে তো আরও বড় অস্বস্তিতে পড়েছিলেন ধোনি। ধীরগতির ব্যাটিংয়ের জন্য মাঠে নেমে দর্শকদের দুয়োও শুনতে হয় ভারতের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ককে। ৫৯ বলে তিনি করেন ৩৭ রান, যে ম্যাচটি ৮৬ রানের বড় ব্যবধানে হারে ভারত।

সবমিলিয়ে ধোনির মনের অবস্থাটা নিশ্চয়ই ভালো নেই, কে জানে হঠাৎ বিদায়ের ঘোষণা দিয়ে বসেন কি না!

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »