বার্তাবাংলা ডেস্ক »

গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে যশোরে ইরাদ আলি নামে একজনকে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করেছে এলাকাবাসী।

সোমবার বিকেলে স্থানীয় জনগণ গণপিটুনি দিয়ে তাকে পুলিশের হাতে সোপর্দ করে। পরে থানায় নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় বিক্ষুদ্ধ জনতা নিহত ইরাদ আলীর বাড়িঘর ভাঙচুরের পর অগ্নিসংযোগও করে।

পুলিশ জানায়, সদর উপজেলার জগন্নাথপুর গ্রামের মতালেব খানের স্ত্রী মেহেরুন্নেছাকে ভাত রান্না করে দেয়ার কথা বলে সোমবার দুপুরে নিজ বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায় ইরাদ। এরপর থেকে মেহেরুন্নেছা নিখোঁজ ছিলেন। বিকেলে স্থানীয় জনগণ ইরাদকে আটক করে গণপিটুনি দেয়। পরে সে মেহেরুনকে হত্যার কথা স্বীকার করে। তার স্বীকারোক্তিতে সন্ধ্যায় ইরাদের রান্নাঘর থেকে মেহেরুনের বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা।

রাতেই পুলিশ ইরাদকে হেফাজতে নিয়ে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা সেবা দেয়। পরে ইরাদকে থানায় নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। পরে নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »