আম কাঁঠালের দাম বাড়ছে

আম কাঁঠালের

সুম শুরুর দিকে আম কাঁঠালের দাম ছিল সর্বনিম্ন। কাঁঠাল ছিল একেবারেই সস্তা। কিন্তু রাজধানীর খুচরা বাজারে বাড়তে শুরু করেছে সব ধরনের আমের দাম। প্রকারভেদে আমের দাম কেজিতে বেড়েছে ৫-১০ টাকা। তবে দাম বাড়লেও এখনো তা সাধারণ মানুষের নাগালের মধ্যেই রয়েছে।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, এতদিন ছিল আমের ভরা মৌসুম। এখন সেই মৌসুমে একটু ভাটা পড়েছে। বাজারে আসতে শুরু করেছে ফজলি আম। এ আমের দাম কমই আছে। তবে অন্য আমের দাম কিছুটা বাড়তি।

রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, আগে যেসব আম ৩০-৩৫ টাকায় বিক্রি হত, এখন সেসব আম বিক্রি হচ্ছে ৪০-৪৫ টাকায়। অর্থাৎ বাজারে এর চেয়ে কম দামের কোনো আম নেই।

এদিকে রাজধানীর এলাকাভেদে আমের দামের কিছুটা পার্থক্য রয়েছে। মিরপুরের বাজারে হিমসাগর কেজিপ্রতি ৭০-৮০ টাকায় বিক্রি করছেন খুচরা ব্যবসায়ীরা। এটা গত সপ্তাহের চেয়ে কেজিতে ১০ টাকা বেশি। ল্যাংড়া ও আম্রপালি মান ভেদে ৬৫-৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ফজলি আম বিক্রি হচ্ছে ৫০-৭০ টাকায়।

ব্যবসায়ী মুকুল বলেন, এতদিন সুন্দরী জাতের আম কেজি ১০০ টাকায় বিক্রি করলাম। পাইকারী বাজারে দাম বাড়ায় এখন সেটা ১২০ টাকার নিচে দেয়া সম্ভব না।

তিনি বলেন, কম দামে বহু আম খেল পাবলিক। এখন আর সেটা হবে না। মৌসুম শেষ হয়ে আসছে।

এ ধরনের আরও কন্টেন্ট

সাইফুল আলম নামের এক ক্রেতা জানান, আমের দাম রেকর্ড পরিমাণ কম ছিল। বলতে পারেন গত এক দশকের মধ্যে আমের দাম এত কম যায়নি। আলহামদুলিল্লাহ খেয়েছিও প্রচুর। এখন একটু দাম বেড়েছে। সেটাও খুব বেশি না। সাধ্যের মধ্যেই রয়েছে।

তিনি বলেন, এখনও আমের মৌসুম শেষ হয়নি। এরপর ফজলি ও চুষা জাতের আম আসবে। আশা করি সেগুলোর দামও কম থাকবে।

এদিকে কাঁঠালের দামও কিছুটা বাড়তি। ব্যবসায়ীরা বলছেন, মাঝারি সাইজের একটা কাঁঠাল আগে ১০০ টাকায় বিক্রি করেছি, এখন সেটা ১২০-১৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

খুচরা ব্যবসায়ী আনিস রহমান বলেন, গাজীপুরের কাঁঠাল ভালো। কিন্তু এখন দাম একটু বেশি। ফলে বেশি দামেই বিক্রি করতে হচ্ছে

এ ধরনের আরও কন্টেন্ট