মেয়েদের মুখে অতিরিক্ত লোমের সমস্যা দূর করা ম্যাজিক টিপ্স

মেয়েদের মুখে অতিরিক্ত লোম

মুখে অস্বাভাবিক হেয়ার গ্রোথকে চিকিৎসা পরিভাষায় ‘হির্সুটিজম’ বলা হয়ে থাকে। গবেষণায় দেখা গেছে মেয়েদের শরীরে বেশি পরিবর্তন হতে শুরু করলে, বিশেষত ইস্ট্রোজেন হরমোনের ক্ষরণ ঠিকমতো না হলে মুখের পাশাপাশি সারা শরীরে চুলের মাত্রা বাড়তে শুরু করে। মেয়েদের শরীরে বেশি পরিবর্তন হতে শুরু করলে, বিশেষত ইস্ট্রোজেন হরমোনের ক্ষরণ ঠিকমতো না হলে মুখের পাশাপাশি সারা শরীরে চুলের মাত্রা বাড়তে শুরু করে। এই রোগে ছেলেদের মতো মেয়েদের মুখেও দাড়ি-গোঁফ গজাতে শুরু করে। ফলে অপ্রিতিকর পরিস্থিতির সম্মুখীন তো হতে হয়ই, সেইসঙ্গে সৌন্দর্যও কমে চোখে পরার মতো। এমন হলে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই কিছু করার থাকে না। তবে কিছু করণীয় আছে যা মেনে চললে মুক্তি মিলতে পারে এই সমস্যা থেকে।

২ চামচ চিনির সঙ্গে ১ চামচ মধু এবং পানি মিশিয়ে নিতে হবে। তারপর মিশ্রণটি এক এক মিনিট ফুটিয়ে নিতে হবে। সময় হয়ে গেলে মিশ্রণটি ঠান্ডা করে মুখের যেখানে যেখানে চুল গড়িয়ে উঠেছে, সেখানে লাগাতে হবে। এবার পরিষ্কার একটা কাপড় ওই মিশ্রণটি যেখানে যেখানে লাগিয়েছেন, সেখানে লাগিয়ে জোরে টেনে চুলগুলি উপড়ে ফেলতে হবে। এইভাবে সারা মুখের অবাঞ্ছিত চুল দূর করা যাবে।

২ চামচ ময়দার সঙ্গে ১ চামচ দুধের সর, হাফ চামচ দুধ এবং অল্প পরিমাণে হলুদ মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর সবকটি উপাদান একসঙ্গে মিশিয়ে বানিয়ে ফেলতে হবে একটি পেস্ট। এবার সেই মিশ্রণটি মুখ লাগিয়ে কম করে ২০ মিনিট অপেক্ষা করে হলকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। এইভাবে সপ্তাহে ৩-৪ বার যদি ত্বকের পরিচর্যা করতে পারেন, তাহলেই দেখবেন কেল্লা ফতে!

দেড় চামচ গোলপ জল এবং ২ চামচ ময়দা নিন। এই দুটি উপাদান মিশিয়ে নেওয়ার পর তাতে ১ চামচ লেবুর রস মিশিয়ে বানিয়ে ফেলতে হবে একটি পেস্ট। এবার সেই পেস্টটা সারা মুখে লাগিয়ে ২০-২৫ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। সময় হয়ে গেলে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফলতে হবে। প্রসঙ্গত, সপ্তাহে কম করে ৪ বার এই ফেসপ্যাকটি লাগালে দেখবেন দারুণ উপকার মিলবে।

নিয়মিত পুদিনা পাতা দিয়ে বানানো চা খেলে হরমোনের ক্ষরণকে অনেকটাই ঠিক রাখা যায়। আর এতে সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

১ চামচ লেবুর রসের সঙ্গে ৪ চামচ মধু মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর সেই মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে কম করে ১৫-২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। সময় হয়ে গেলে একটা পরিষ্কার কাপড় গরম পানি চুবিয়ে ধীরে ধীরে মুখটা ধুয়ে ফেলতে হবে। এইভাবে সপ্তাহে ২ বার ত্বকের পরিচর্যা করলেই দেখবেন একটাও ফেসিয়াল হেয়ারকে খুঁজে পাওয়া যাবে না।

ফেসিয়াল হেয়ারকে চটজলদি ঝরিয়ে ফেলতে এই ফেসিয়াল মাস্কটির কোনো বিকল্প হয় না বললেই চলে। এক্ষেত্রে একটা ডিমের কুসুমের সঙ্গে ১ চামচ চিনি এবং দেড় চামচ ময়দা মিশিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে নিন। তারপর মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে ১৫-২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। যখন দেখবেন পেস্টটা শুকিয়ে যেতে শুরু করেছে, তখন ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে মুখটা।