শেষ হলো সহিংস সকাল সন্ধ্যা হরতাল

বার্তাবাংলা ডেস্ক :: ১৮ দলের সকাল-সন্ধ্যা হরতালে মঙ্গলবার বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষ ছাড়াও বিভিন্ন স্থানে গাড়িতে আগুন ও ভাংচুর এবং গাছের গুঁড়ি ফেলে যান চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা হয়। সংঘর্ষে আহত হয়েছে অর্ধশতাধিক। এসময় পুলিশ দেড় শতাধিক পিকেটরকে আটক করে। এদিকে, আটক নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে ছাত্রশিবির বুধবার আবারো রংপুরে আধাবেলা এবং রাজশাহীতে সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ডাক দিয়েছে। তবে এতে এইচএসসি পরীক্ষা হরতালের আওতামুক্ত থাকবে বলে ঘোষণা দেয়া হয়েছে।
রাজশাহী: রাজশাহীতে সকালে হরতালের সমর্থনে নগরীর কাদিবাজার এলাকা থেকে মিছিল বের করে জেলা বিএনপি। মিছিলটি মালোপাড়া এলাকায় পৌঁছুলে পুলিশ বাধা দিলে বিএনপি কর্মীরা রাস্তায় বসে বিক্ষোভ করে। এদিকে নগরীর খড়খড়ি বাইপাস এলাকায় ছাত্রশিবিরের কর্মীরা মহাসড়কের ওপর গাছ ফেলে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করে এবং রাস্তায় আগুন ধরিয়ে দেয়।
সিলেট: সিলেটে সকালে নগরীর পাঠানটুলা এলাকা থেকে হরতালের সমর্থনে মিছিল বের করে শিবিরকর্মীরা। এসময় তারা সুনামগঞ্জ সড়কে টায়ারে আগুন ধরিয়ে এবং ইট ফেলে যান চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। পুলিশ শিবিরকর্মীদের একটি মোটর সাইকেল আটক করে।
খুলনা: খুলনায় জেলখানা ঘাট এলাকা থেকে হরতালের সমর্থনে মিছিল বের করে জেলা বিএনপি। এসময় হরতাল সমর্থকরা অগ্নিসংযোগ করে সড়ক অবরোধের চেষ্টা করে। একই সময়ে শহরের টুটপাড়ার তালতলা এলাকা থেকে আরেকটি মিছিল বের করে শিবির কর্মীরা।
চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামে ১৮ দলীয় জোটের ডাকা হরতাল কোন সহিংসতা ছাড়াই শেষ হয়েছে। রাস্তায় কোনো পিকেটারের দেখা না মিললেও বিজিবি টহলের পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন ছিল।
রংপুর: রংপুরে নগরীর বুড়ীর হাট ও মাহিগঞ্জ এলাকায় দুটি চালবাহী ট্রাকে আগুন ধরিয়ে দেয় বিএনপি ও জামায়াত-শিবির কর্মীরা। বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ২২ জন শিবির কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ।
বরিশাল: বরিশালে স্ব-রোড এলাকায় পিকেটাররা দুটি ট্রাক ও একটি রিক্সা ভাংচুর করে। এর আগে নগরীর সিএণ্ডবি রোড এলাকায় টায়ারে আগুন ও সড়কে গাছ ফেলে যান চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। এসময় দুটি মোটর সাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয় বিএনপি ও জামায়াত-শিবির কর্মীরা।ফেনী: ফেনীতে হরতালের শুরুতে আগুন, ককটেল বিস্ফোরণ, সড়ক অবরোধ এবং পুলিশের সঙ্গে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। হরতালের সমর্থনে শিবিরকর্মীরা ভোরে শহরের শহীদ শহীদুল্লাহ কায়সার সড়কে মিছিল বের করে। এসময় তিনটি ককটেল বিস্ফোরণ ছাড়াও রাস্তায় টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে পিকেটাররা বিক্ষোভ করে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের রামপুর ব্রিক ফিল্ড এলাকায় তাদের হামলায় একটি কাভার্ড ভ্যান রাস্তার পাশে উল্টে পড়ে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ৩ রাউন্ড শটগানের গুলি ছুঁড়লে তারা ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। পরে আবারো একই স্থানে জড়ো হয়ে তারা রাস্তায় টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে এবং ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে সড়ক অবরোধের চেষ্টা করে। পুলিশের তাড়া খেয়ে আবারো তারা পালিয়ে যায়।
নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জে সকালে হরতালের সমর্থনে দ্বিগুবাবুর বাজার থেকে মিছিল নিয়ে ফলপট্টির দুই নাম্বার গেটের কাছে পৌঁছালে পুলিশ তাদের ধাওয়া করে। এসময় পিকেটাররা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। অন্যদিকে ঢাকা বাইপাস সড়কের সোনারগাঁও এলাকায় বিএনপির সমর্থকরা একটি মিছিল বের করে। এসময় তারা টায়ার জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এছাড়া নগরীর গলাচিপা এলাকায় বিএনপি কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এসময় পুলিশ বেশ করে রাউন্ড টিয়ার শেল নিক্ষেপ করে।
বগুড়া: বগুড়ায় সকাল ৯টার দিকে শহরের চেলোপাড়া রেল ব্রিজের স্লিপারে আগুন দেয় হরতাল সমর্থকরা। অন্যদিকে হরতালের সমর্থনে শহরের খান্দার এলাকা থেকে মিছিল বের করে শিবিরকর্মীরা। এসময় তারা রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে পিকেটিং করে। এছাড়া, শহরের ঝোপগাড়ি এলাকায় স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীরা মিছিল এবং চণ্ডিহারা এলাকায় রাস্তায় গাছ ফেলে পিকেটাররা ব্যারিকেডদেয়। এসময় তারা তিনটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
নাটোর: নাটোরে সকালের দিকে পিকেটাররা টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে ঢাকা মহাসড়ক অবরোধের চেষ্টা করে। অন্যদিকে লালপুর উপজেলার ঈশ্বরদী-বাঘা সড়কের পাইকপাড়া এলাকায় হরতাল সমর্থকরা সড়ক অবরোধের চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের লাঠিচার্জ করে সরিয়ে দেয়। এছাড়া হরতালের সমর্থনে শহরের স্টেশন বাজার এলাকায় বিক্ষোভ ও সমাবেশ করে ছাত্রদল।
দিনাজপুর: দিনাজপুরে সকাল সাড়ে ১০টায় চিরিরবন্দর উপজেলার হাজির মোড়ে হরতাল সমর্থকরা গাছের গুড়ি ফেলে সড়ক অবোরধ করে। খবর পেয়ে পুলিশ বাধা দিলে জামাত শিবির কর্মীরা পুলিশের ওপর হামলা চালায়। এতে ৩ পুলিশসহ আহত হয় ১০ জন। এসময়ে পুলিশের এসআইয়ের মটর সাইকেলে আগুন জ্বালিয়ে দেয় শিবির কর্মীরা। গুরুতর আহত অবস্থায় এসআই সবুরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
এছাড়া বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্যদিয়ে ময়মনসিংহ, ভোলা, চাঁদপুর, সিরাজগঞ্জ, জয়পুর, কুড়িগ্রাম, সুনামগঞ্জ, পাবনা, ঝিনাইদহ, গাজীপুর ও ঠাকুরগাঁওসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ১৮ দলীয় জোটের সকাল-সন্ধ্যা হরতাল পালনের খবর পাওয়া গেছে।