বার্তাবাংলা ডেস্ক »

চুল ক্রমশ রং হারাচ্ছে। কালো থেকে হচ্ছে ধূসর। অগত্যা ভরসা বাজার চলতি কেমিক্যাল কালার। কিন্তু এই রঙের ঠেলায় আবার চুলের বারোটা বাজার জোগাড়। এমন ক্ষেত্রে কাজ দিতে পারে চা পাতা। চুলের রং ফিরিয়ে আনতে এই ঘরোয়া উপায়ের আর কোনও বিকল্প খুঁজে পাওয়া ভার।

লিকার চা

লিকার চা ট্যানিক অ্যাসিডে পরিপূর্ণ থাকে। ফলে এটি চুল কালো করতে সবচেয়ে বেশি সাহায্য করে। ৬ চামচ বা ৬টি টি-ব্যাগ দিয়ে কড়া লিকার চা তৈরি করুন। তারপর সেটি দিয়ে চুলে লাগান। এই অবস্থায় আধঘণ্টা রেখে দিন। তারপর উষ্ণ পানিতে ধুয়ে ফেলুন।

কফি + চা

চায়ের সঙ্গে কফি মিশিয়ে লাগালেও ফল পাওয়া যায়। সাধারণত কফি ব্যবহার করলে গাঢ় বাদামী রঙের চুল পাওয়া যায়। অনেকেই চুলে রং করতে হেনার সঙ্গে কফি ব্যবহার করেন। কিন্তু কফির সঙ্গে চা মিশিয়ে লাগালে সেই রং অনেকদিন টেকে। এর জন্য তিনটি টি-ব্যাগ তিন কাপ পানিতে ফোটাতে হবে। তাতে তিন চামচ কফি মেশাতে হবে। গোটা মিশ্রণটি ৫ মিনিট ফোটাতে হবে। এরপর সেই মিশ্রণটি ঠান্ডা করে চুলে দিন। একঘণ্টা রেখে ধুয়ে ফেলুন।

চুল ধোয়ার জন্য চা

চা শুধু চুলে লাগিয়ে রাখলে যতটা রং হবে চা দিয়ে ফের একবার চুল ধুলে রং আরও গাঢ় হবে। প্রথমে চা দিয়ে চুল ধুয়ে মিনিট ১৫-২০ রাখুন। তারপর ফের চা দিয়ে ২-৩ বার চুল ধুয়ে ফেলুন। এর ফলে কালো রং দীর্ঘস্থায়ী হবে।

অরগ্যানিক পাতা ও চা

সাত টি-ব্যাগ চায়ের সঙ্গে দু’টি রোজমেরি পাতা মিশিয়ে ফুটিয়ে নিন। সেটি এরপর চুলে লাগিয়ে ১-২ ঘণ্টা রেখে দিন। গাঢ় রং পেতে হলে আরও কিছুক্ষণ রাখতে পারেন। এরপর জল দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

চা ও তুলসী পাতা

৫ চামচ চায়ের সঙ্গে ৫টি তুলসী পাতা ফুটিয়ে নিন। তারপর সেই মিশ্রণটি চুলে দিন। এর সঙ্গে কয়েক ফোঁটা পাতিলেবুর রস ব্যবহার করতে পারেন। এর ফলে যেমন চুলে রং হবে, তেমনই খুসকি থেকেও রক্ষা পাওয়া যাবে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »