বার্তাবাংলা ডেস্ক »

আফ্রিকার দেশ কঙ্গোতে ইবোলার প্রাদুর্ভাব বেড়ে গেছে। এই রোগ নিয়ন্ত্রণ করা বেশ কঠিন হয়ে পড়ছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী অলি ইলুংগা কেলেঙ্গা মানদাকা শহরে নতুন করে আরও একজনের ইবোলায় আক্রান্ত হওয়ার বিষয়ে নিশ্চিত করেছেন। এ মাসের শুরুতেই প্রথম ইবোলায় আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা নিশ্চিত করা হয়।

বিশ্ব স্বাস্থ্যসংস্থা (ডব্লিউএইচও) জানিয়েছে, এ পর্যন্ত ইবোলায় আক্রান্ত হয়েছে ৪২ জন। আর ইবোলা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ২৩ জন। কঙ্গোর ইকুয়েটিউর প্রদেশের তিনটি স্বাস্থ্য অঞ্চলে ইবোলায় আক্রান্ত হওয়া, মৃত্যুর সংখ্যা এবং ইবোলা হওয়ার আশঙ্কা বেড়ে গেছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্যসংস্থার পিটার সালামা বলেন, স্বাস্থ্য সংস্থার কর্মকর্তারা নিশ্চিত হয়েছেন যে, ৪৩০ জন হয়তো ইবোলা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। কঙ্গোর উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে ইবোলা ছড়িয়ে পড়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বুধবার ৪ হাজারের বেশি ইবোলার পরীক্ষামূলক ভ্যাকসিন পাঠিয়েছে। ইতোমধ্যেই সেগুলো কঙ্গোতে পৌঁছে গেছে। এসব ভ্যাকসিন লাইসেন্সপ্রাপ্ত না হলেও পশ্চিম আফ্রিকায় এগুলো ইবোলার বিরুদ্ধে বেশ কার্যকর হয়েছে। এসব ভ্যাকসিন ৬০ থেকে ৮০ সেলসিয়াস তাপমাত্রার মধ্যে সংরক্ষণ করতে হয়।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »